৪ বছর পর সচিবদের নিয়ে বৈঠক

প্রকাশিত: ১২:৫৮ অপরাহ্ণ, বুধ, ১৮ আগস্ট ২১

নিজস্ব প্রতিবেদক।।

শেখ হাসিনা টানা বারো বছরের বেশি সময় প্রধানমন্ত্রী। তার প্রধানমন্ত্রীত্বের বয়স ১৭ বছরের বেশি। প্রশাসনের নাড়ী নক্ষত্র তার নখ দর্পনে। একটা ফাইল তিনি যতো নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করেন, তা আর কেউ করতে পারেন না।
ফাইল দেখেই বুঝতে পারেন সমস্যা কোথায়। এরকম প্রাজ্ঞ, অভিজ্ঞ একজন নির্বাহী প্রধানের মুখোমুখি হতে যে কেউই সজাগ এবং সতর্ক থাকেন। অনেকে আতংকেও থাকেন। সেই প্রধান নির্বাহীর মুখোমুখি হচ্ছেন দেশের প্রশাসনের শীর্ষ কর্তারা।
দীর্ঘ ৪ বছর পর এই সচিব কমিটির সভা নিয়ে কেবল প্রশাসনে নয়, জনগণের মধ্যেও ব্যাপক আগ্রহ রয়েছে। এই আগ্রহের কারণ একাধিক। সাম্প্রতিক সময়ে আমলাতন্ত্রের উত্থান নিয়ে নানা কথা বার্তা চলছে। রাজনীতিবীদদের সাইডলাইনে বসিয়ে আমলারাই দেশ চালাচ্ছেন এমন কথা বলা হচ্ছে চায়ের স্টল থেকে সংসদে। আমলাদের উত্থানের মধ্যে দিয়েই কিছু কিছু ঘটনায় আমলাদের মধ্যে একধরনের অস্বস্তি এবং আতংক ছড়িয়ে পরেছে।
সম্প্রতি সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, সরকারী কর্মকর্তা এবং কর্মচারীদের সম্পদের হিসেব দিতে হবে। দেশে আমলাদের যখন বাড় বাড়ন্ত তখন সরকারের এরকম সিদ্ধান্তে আমলারা কিছুটা হলেও উদ্বিগ্ন। এটা বন্ধের জন্য আমলারা দেন- দরবার করেছেন বলেও খবর পাওয়া যায়। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী আমলাদের এসব আবদার আবেদন প্রত্যাখান করেছেন। আমলাদের জন্য দ্বিতীয় ধাক্কা ছিলো “চাটুকারিতা”। প্রধানমন্ত্রীর নামে নামকরণের প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রী প্রত্যাখান।
জামালপুরের সোলার পার্কের নামকরণ ‘শেখ হাসিনা সোলার পার্ক করার প্রস্তাব উপস্থাপিত হয়েছিল একনেকের সভায়। কিন্তু প্রস্তাবটি নাকচ করে দেন প্রধানমন্ত্রী। ঐ বৈঠকে অন্তত দুইজন আমলা প্রধানমন্ত্রীকে রাজী করাতে প্রানান্ত চেষ্টা করেন। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী কিছুতেই সায় দেননি।
এই দুই ঘটনার পর অনেকেই মনে করছেন, প্রধানমন্ত্রী সম্ভবতঃ আমলাদের লাগাম টেনে ধরেছেন। আমলাদের প্রভাব এবং জবাবদিহিতার উর্ধ্বে থাকার দিন কি তাহলে শেষ হতে চলেছে, এরকম প্রশ্নও উঠেছে। এরকম প্রশ্ন এবং নানা মুখী জল্পনার মুখেই  সচিবদের সঙ্গে বৈঠক হতে যাচ্ছে। এই বৈঠক নানা কারণেই গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।
যদিও বৈঠকের আয়োজক মন্ত্রী পরিষদ বিভাগের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, সাতটি এজেন্ডা নিয়ে বৈঠকে আলোচনা হবে। প্রধানমন্ত্রী এসব ব্যাপারে দিক নির্দেশনা দেবেন। তবে, দুর্নীতি এবং সমন্বয়হীনতার ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী বৈঠকে বার্তা দেবেন বলেই একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে।