website page counter প্রাথমিকে প্রক্সি দেয়ায় ১৯ শিক্ষার্থী বহিষ্কার, শিক্ষিকাকে জরিমানা - শিক্ষাবার্তা ডট কম

বুধবার, ১১ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং, ২৬শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

প্রাথমিকে প্রক্সি দেয়ায় ১৯ শিক্ষার্থী বহিষ্কার, শিক্ষিকাকে জরিমানা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় পঞ্চম শ্রেণির সমাপনীতে (পিএসসি) অন্যদের দিয়ে পরীক্ষা দেওয়ানোর অভিযোগে ১৯ শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে। এছাড়া প্রক্সি দিতে আসা শিক্ষার্থীদের অভিভাবক ও দুই স্কুল শিক্ষিকাকে জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বিষয়টি জেনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাহমিনা আক্তার রেইনা, কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বিআরডিবি কর্মকর্তা মো. খোরশেদ আলমসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত হয়ে এ বিষয়ে পদক্ষেপ নেন।

মঙ্গলবার সকালে গণিত পরীক্ষা চলাকালে উপজেলার তুলাই শিমুল উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ জালিয়াতি ধরা পড়ে। ওই কেন্দ্রে উপজেলার মনিয়ন্দ ইউনিয়নের সাতটি একই এলাকার আনন্দ স্কুলের ৩৮ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেয়। এর মধ্যে ১৯ জনের হয়ে পরীক্ষা দিচ্ছিল উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

তুলাই শিমুল কেন্দ্রের কেন্দ্র সচিব ও তুলাই শিমুল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুল করিম বলেন, এক শিক্ষার্থীর হাতের লেখা সুন্দর দেখে কক্ষ পরিদর্শক তার প্রসংশা করেন। তখন অন্য শিক্ষার্থীরা জানায় ওই পরীক্ষার্থী অষ্টম শ্রেণিতে পড়ে। বিষয়টি তিনি কেন্দ্র সচিবকে জানান। পরে খোঁজ নিয়ে দুটি কক্ষে ১৯ জন শিক্ষার্থীকে পাওয়া যায় যারা প্রক্সি দিচ্ছে। পরে তাৎক্ষণিকভাবে ওই শিক্ষার্থীদের বহিষ্কার করা হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তাহমিনা আক্তার রেইনা বলেন, প্রক্সি পরীক্ষার খবর পেয়ে ওই স্কুলে যাই। বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে ১৯ পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার করি। সেই সঙ্গে প্রক্সি দিতে আসা শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের ডেকে এনে ৫০০ টাকা করে জরিমানা করা হয়।

এ সময় ওই কেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা দুই শিক্ষককে সাথী আক্তার ও পপি আক্তারকে কর্তব্যে অবহেলার জন্য ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়।

এই বিভাগের আরও খবরঃ