website page counter প্রাথমিক শিক্ষকদের সঙ্গে গণশিক্ষা সচিবের বৈঠকে যা হলো - শিক্ষাবার্তা ডট কম

বুধবার, ২০শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং, ৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

প্রাথমিক শিক্ষকদের সঙ্গে গণশিক্ষা সচিবের বৈঠকে যা হলো

গ্রেড পরিবর্তনের দাবিতে দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করছেন প্রাথমিক বিদ‌্যালয়ের শিক্ষকরা। দাবি না মানলে আসন্ন প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা বর্জনেরও ঘোষণা দিয়েছেন তারা। বিষয়টি নিয়ে শিক্ষকরা জোর তৎপরতা চালাচ্ছেন বলে জানা গেছে। দফায় দফায় বৈঠক করছেন সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে। এর অংশ হিসেবে ফের প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব আকরাম আল হোসেনের সঙ্গে বৈঠক করেছেন প্রাথমিকের শিক্ষকরা।

বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টায় সচিবের কার্যালয়ে এ বৈঠক শুরু হয়। বৈঠকে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা ও শিক্ষকদের দাবির বিষয়ে কথা হয়।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক মোহাম্মদ শামছুদ্দীন মাসুদ, শিক্ষক নেতা আনিসুর রহমান, মো. বদরুল আলম, আনোয়ারুল ইসলাম তোতা, আবদুল্লাহ সরকার, আবুল কাশেম প্রমুখ।

জানা গেছে, গণশিক্ষা সচিব শিক্ষকদের প্রতি অনুরোধ করেছেন সমাপনী পরীক্ষা বর্জনের কর্মসূচি থেকে সরে আসতে। সচিব এ সময় জানান, এই মুহূর্তে প্রধান শিক্ষকদের ১১তম ও সহকারীদের ১৩ গ্রেড দেওয়া ছাড়া উপায় নেই। আরো জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে প্রাথমিক শিক্ষক নেতাদের সাক্ষাৎ করিয়ে দিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন গণশিক্ষা সচিব।

বৈঠকে শেষে শিক্ষক ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক মোহাম্মদ শামছুদ্দীন আহমেদ মাসুদ জানান, সচিব মহোদয় সমাপনী পরীক্ষা বর্জনের মতো কর্মসূচি থেকে সরে আসার অনুরোধ করেছেন। আমরা আমাদের দাবির বিষয়টি ‍ তুলে ধরেছি। উনাকে অনুরোধ করেছি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আমাদের সাক্ষাতের ব্যবস্থা করে দিতে। সচিব মহোদয় বলেছেন, উনি চেষ্টা করবেন।

কোনো সিদ্ধান্তে এসেছেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে শামছুদ্দীন আহমেদ মাসুদ বলেন, ১৩ নভেম্বরের মধ্যে আমাদের দাবি মেনে নেয়া না হলে সমাপনী ও বার্ষিক পরীক্ষা বর্জনের যে কর্মসূচি আছে তা প্রত্যাহের বিষয়ে এখনো সিদ্ধান্ত নেইনি। আমরা বৈঠক করে সিদ্ধান্ত জানাবো

জানা যায়, দাবির বিষয়ে গত সপ্তাহে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. এ এফ এম মনজুর কাদিরের সঙ্গে বৈঠকে বসেন শিক্ষক নেতারা। পরে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেনের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন তারা। সেখানে এসব দাবি তুলে ধরেন শিক্ষকরা।

বৈঠক সূত্র জানায়, সভায় প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা নেয়ার অনুরোধ করেন শিক্ষকদেরকে। এ সময় শিক্ষকরা তাদের দীর্ঘদিন ধরে জানিয়ে আসা দাবির যৌক্তিকতা তুলে ধরেন। বিশেষত প্রধান শিক্ষকদের ১০ম গ্রেড এবং সহকারী শিক্ষকদের ১১তম গ্রেড মেনে নেয়ার সুনির্দিষ্ট আশ্বাস চান।

জবাবে মহাপরিচালক এ বিষয়ে সরকারের অবস্থান তুলে ধরে জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ বিষয়ে অবগত আছেন। এ সময় শিক্ষক নেতারা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করার ব্যবস্থা করতে অনুরোধ করেন। তবে এ বিষয়ে তার এখতিয়ানে নেই, জানিয়ে প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলবেন বলে জানান ড. মনজুর কাদির।

একই বিষয়ে শিক্ষকরা প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেনের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেছেন বলে জানা গেছে। সেখানে দাবি মেনে নেয়া, ২ হাজার ৭০০ শিক্ষকের বিরুদ্ধে শোকজ নোটিশ প্রত্যাহার এবং প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের ব্যবস্থা করার অনুরোধ করেন।

প্রতিমন্ত্রী তাদেরকে আশ্বাস্ত করে বলেন, প্রাথমিক শিক্ষকদের দাবির বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী খুবই আন্তরিক। তিনি এ বিষয়টি দ্রুত সমাধান করার নির্দেশ দিয়েছেন।

সমাপনী পরীক্ষায় বিঘ্ন সৃষ্টি না করার অনুরোধ জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, পাবলিক পরীক্ষার কথা বিবেচনা করে শিক্ষকদের বর্জনের কর্মসূচি থেকে সরে আসতে হবে।

এই বিভাগের আরও খবরঃ