website page counter শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের নির্দেশনা - শিক্ষাবার্তা ডট কম

শুক্রবার, ২১শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং, ৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের নির্দেশনা

নতুন প্রজন্মের কাছে মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা উপলব্ধি এবং সংগ্রামী ইতিহাস জানাবার উদ্দেশ্যে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে (স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসা) বিজয় ফুল তৈরি প্রতিযোগিতা ও বিজয় ফুল উৎসব আয়োজন করে আসছেন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। চলতি বছরও এই কর্মসূচি পালনে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে নির্দেশনা দিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, নতুন প্রজন্মের কাছে মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা উপলব্ধি এবং সংগ্রামী ইতিহাস জানানোর উদ্দেশ্যে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে (স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসা) বিজয় ফুল তৈরি প্রতিযোগিতা ও বিজয় ফুল উৎসব আয়োজনের সাথে অন্যান্য প্রতিযোগিতা আয়োজন করে আসছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সদয় নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে জাতীয় ফুল শাপলা ফুল তৈরি ও উপস্থাপনের মাধ্যমে এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। বিজয় ফুল প্রতিযোগিতাটি প্রতিবছর নিয়মিতভাবে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সরাসরি তন্বাবধানে বাস্তবায়নের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সম্প্রতি সদয় সম্মতি জ্ঞাপন করেছেন। ২০১৮ সালের ন্যায় এবছরও স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসা পর্যায়ে দেশের স্বীকৃতিপ্রাপ্ত প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আন্তঃশ্রেণি প্রতিযোগিতার মাধ্যমে শুরু হয়ে উপজেলা, মহানগর, জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ে এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে।

এবারে প্রতিযোগিতার বিষয়, বিজয় ফুল তৈরি, গল্প রচনা, কবিতা রচনা, দেশাত্মবোধক সংগীত জাতীয় সংগীত, কবিতা আবৃত্তি, চিত্রাঙ্কন, একক অভিনয় ও চলচ্চিত্র নির্মাণ। প্রতিযোগিতা সুষ্ঠুভাবে আয়োজনের লক্ষ্যে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়/বিভাগ/দপ্তর/মাঠ-পর্যায়ের অফিসসমূহ কর্তৃক অনুসরণীয় বিষয়াবলি:

(ক) শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পর্যায়ে ২৮ অক্টোবর, উপজেলা/মহানগর পর্যায়ে ৩১ অক্টোবর, জেলা পর্যায়ে ০২ নভেম্বর, বিভাগীয় পর্যায়ে ০৯ নভেম্বর ২০১৯-এর মধ্যে প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতা ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯ তারিখের মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে।

(খ) প্রতিযোগিতা তিনটি স্তরে অনুষ্ঠিত হবে। গ্রুপ-ক: শিশু থেকে পঞ্চম শ্রেণি; গুপ-খ: ষষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণি এবং গ্রুপ-গ: নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণি। প্রতিযোগিতায় ছেলে ও মেয়ে উভয়ের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে;

(গ) সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়/বিভাগ উপজেলা, জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ে স্ব স্ব দপ্তরকে এ কর্মসূচির সফল বাস্তবায়নের জন্য যথাযথ নির্দেশনা প্রদান করবে।

(ঘ) তথ্য মন্ত্রণালয় “বিজয় ফুল” তৈরি ও অন্যান্য প্রতিযোগিতার কর্মসূচি ব্যাপক প্রচারের ব্যবস্থা গ্রহণ করবে;

(ঙ) সুষ্ঠুভাবে প্রতিযোগিতা সম্পন্ন করার জন্য প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ এবং কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ অধীনস্ত স্বীকৃতপ্রাপ্ত প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ২,০০০/- (দুই হাজার) টাকা করে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের অনুকূলে এবং মহানগরের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৫,০০০/- (পাঁচ হাজার) টাকা করে জেলা প্রশাসকের অনুকূলে অর্থ বরাদ্দ প্রদান করবে। জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে উক্ত অর্থ পুনর্বরাদ্দ করবেন। পরবর্তীতে অর্থ বিভাগ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়/বিভাগের চাহিদা মোতাবেক ব্যয়িত অর্থ প্রদান করবে;

(চ) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ/অর্থ বিভাগ উপজেলা, মহানগর, জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ে অনুষ্ঠিত প্রতিযোগিতা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার জন্য যথাক্রমে উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জেলা প্রশাসক ও বিভাগীয় কমিশনার-এর অনুকূলে উপজেলা ও মহানগর পর্যায়ে ৫,০০০/- (পীঁচ হাজার), জেলা পর্যায়ে ৬,০০০/-(ছয় হাজার) ও বিভাগীয় পর্যায়ে ৭০০০/ (সাত হাজার) টাকা করে বরাদ্দ প্রদান করবে; মহানগর কমিটির বরাদ্দ জেলা প্রশাসকের অনুকূলে প্রদান করতে হবে;

(ছ) জাতীয় পর্যায়ের কর্মসূচি বাস্তবায়নের জন্য সংশ্লিষ্ট কমিটির চাহিদা অনুযায়ী অর্থ বিভাগ প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ প্রদান করবে।

এই বিভাগের আরও খবরঃ