website page counter প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী প্রস্তুতি - বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় - শিক্ষাবার্তা ডট কম

শনিবার, ১৪ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং, ২৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী প্রস্তুতি – বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়

প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী প্রস্তুতি – বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়

সোনিয়া আক্তার, ধামদ্ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মুন্সীগঞ্জ সদর, মুন্সীগঞ্জ :

১ নম্বর প্রশ্নের উত্তর

ক) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন মুজিবনগর সরকারের রাষ্ট্রপতি।

খ) ১৯৭১ সালের ২৫শে মার্চের রাতকে ‘কালরাত‘ বলা হয়।

গ) ১৭৫৭ সালের ২৩ জুন পলাশীর যুদ্ধ হয়।

ঘ) লালবাগ দুর্গে নবাব শায়েস্তা খানের কন্যা পরী বিবির মাজার রয়েছে।

ঙ) যেসব কৃষিপণ্য বিদেশে রপ্তানি করে বৈদেশিক মুদ্রা উপার্জন হয় তাকে অর্থকরী ফসল বলে।

চ) দেশের প্রতি ৪০৪৩ জন লোকের জন্য মাত্র একজন প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত চিকিৎসক রয়েছেন।

ছ) প্রাকৃতিক ও মানবসৃষ্ট দূষণের কারণে বিশ্বের জলবায়ু বদলে যাচ্ছে।

জ) জাতিসংঘ ১৯৪৮ সালের ১০ ডিসেম্বর ‘মানবাধিকার সর্বজনীন ঘোষণপত্র’ অনুমোদন করে।

ঝ) সমাজে নারী ও পুরুষের মধ্যকার বৈষম্য দূর করার জন্য আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালন করা হয়।

ঞ) প্রাথমিক চিকিৎসা বাক্সে—তুলা, ব্যান্ডেজ, জীবাণুনাশক, থার্মোমিটার, কাঁচি ও টেপ থাকে।

ট) অন্যের মতামতকে সম্মান করা এবং বেশির ভাগের মতামতের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করাকে গণতান্ত্রিক মনোভাব বলে।

ঠ) পার্বত্য অঞ্চলে ১১টি জাতিসত্তা বসবাস করে আসছে।

ড) খাসিদের প্রধান দেবতার নাম ‘উব্লাই নাংথউ’।

ঢ) ১৯৪৫ সালের ২৪ অক্টোবর জাতিসংঘ গঠিত হয়।

ণ) বাংলাদেশে বিশ্বব্যাংক দ্বারা পরিচালিত একটি প্রকল্প হলো CASE। এর পূর্ণরূপ হলো-Clean Air and Sustainable Environment.

২ নম্বর প্রশ্নের উত্তর

ক) মুহাম্মদ আতাউল গনি ওসমানী, খ) শহীদ বুদ্ধিজীবী, গ) উনিশ,

ঘ) পুণ্ড্রনগর, ঙ) বৈদেশিক মুদ্রা, চ) দক্ষ জনশক্তি.

ছ) ২০, জ) মানবাধিকার, ঝ) ৮ই, ঞ) কর,

ট) জনগণের, ঠ) সাংসারেক, ড) ম্রো,

ঢ) বিশ্বশান্তি।

৩ নম্বর প্রশ্নের উত্তর

ক+ iii, খ+ v, গ+ ii, ঘ+ i, ঙ+ iv

৪ নম্বর প্রশ্নের উত্তর

ক) ১৯৭১ সালের ২৫শে মার্চ রাতে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর এ দেশের নিরস্ত্র ঘুমন্ত মানুষের ওপর নারকীয় হত্যাযজ্ঞই হলো অপারেশন সার্চলাইট।

পাকিস্তান সরকারের শাসন ও শোষণের বিরুদ্ধে বাঙালিরা যে আন্দোলন গড়ে তোলে, তা বন্ধ করতে এবং বাঙালিদের নিধন করতে অপারেশন সার্চলাইট পরিচালিত হয়।

অপারেশন সার্চলাইটের চারটি ফলাফল হলো—

নিরীহ বাঙালিদের হত্যা করা হয়।

অনেক বাড়িঘর ও সম্পদ পুড়িয়ে দেওয়া হয়।

বাঙালি অনেক পুলিশ ও ইপিআরকে হত্যা করা হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষকদেরও হত্যা করা হয়।

খ) ১৭৫৭ সালের ২ জুন পলাশীর প্রান্তরে পলাশীর যুদ্ধ হয়েছিল।

নবাব পরিবারের কিছু সদস্য, তাঁর ব্যবসায়ী বণিকরা এবং সেনাপতি মীরজাফরের ষড়যন্ত্রের কারণে ইংরেজরা বাংলার মসনদ দখল করতে চেয়েছিল এবং এ লক্ষ্যে নবাবের সব আইন-কানুন ভঙ্গ করতে থাকে। ফলে ইংরেজদের সঙ্গে যুদ্ধ হয়েছিল।

পলাশীর যুদ্ধের তিনটি ফলাফল—

এ যুদ্ধে নবাব পরাজিত হন এবং পরে তাঁকে হত্যা করা হয়।

পলাশীর যুদ্ধের মাধ্যমে ইংরেজরা ২০০ বছরের জন্য বাংলা দখল করে নেয়।

এর ফলে বাংলার স্বাধীনতার সূর্য অস্তমিত হয় এবং বাংলায় ইংরেজ শাসনের ভিত্তি স্থাপিত হয়।

গ) মৌর্য আমলে মহাস্থানগড় পুণ্ড্রনগর নামে পরিচিত ছিল।

খ্রিস্টপূর্ব তৃতীয় শতক থেকে পরবর্তী ১৫০০ বছরের বেশি সময়কালের বাংলার ইতিহাসের সাক্ষ্য বহন করে এই নিদর্শনটি, তাই এটি এত গুরুত্বপূর্ণ। মহাস্থানগড়ে প্রাপ্ত চারটি নিদর্শনের নাম হলো—চওড়া খাদবিশিষ্ট প্রাচীন দুর্গ;

প্রাচীন ব্রাহ্মী শিলালিপি;

মন্দিরসহ অন্যান্য ধর্মীয় ভগ্নাবশেষ;

৩.৩৫ মিটার লম্বা ‘খোদাই পাথর’।

ঘ) পাট বাংলাদেশের প্রধান অর্থকরী ফসল।

পাট ও পাটজাত দ্রব্য রপ্তানি করে বাংলাদেশ প্রতিবছর প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করে। এ জন্য পাটকে ‘সোনালি আঁশ’ বলা হয়।

পাট সম্পর্কে তিনটি তথ্য নিম্নরূপ—

বিশ্বে ভারতের পরে বাংলাদেশেই সবচেয়ে বেশি পাট উৎপন্ন হয়;

বাংলাদেশের মাটি ও জলবায়ু পাট চাষের জন্য বিশেষ উপযোগী। এ দেশের সব এলাকায়ই পাটের চাষ হয়;

এ দেশের বহু মানুষ পাট চাষ ও ব্যবসার সঙ্গে জড়িত।

ঙ) সাধারণত কোনো স্থানের ৩০ থেকে ৪০ বছরের বেশি সময়ের আবহাওয়ার গড়কে জলবায়ু বলে।

জলবায়ু পরিবর্তনে মানবসৃষ্ট অন্যতম প্রধান কারণ হলো—বন উজাড় করে ফেলা।

জলবায়ু পরিবর্তনের চারটি প্রভাব হলো—

পৃথিবীর গড় তাপমাত্রা বৃদ্ধি পাচ্ছে;

প্রতিবছর অতিবৃষ্টি বা অনাবৃষ্টি দেখা দিচ্ছে;

ভয়াবহ প্রাকৃতিক দুর্যোগ দেখা দিচ্ছে;

মাটির লবণাক্ততা বেড়ে কৃষিজমির ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে।

চ) ফার্স্ট এইড বক্স হলো প্রাথমিক চিকিৎসার বিভিন্ন উপাদান সংরক্ষণের বাক্স।

এই বক্সে রাখা দুটি উপাদানের নাম হলো—কাঁচি ও তুলা।

বাড়িতে নিরাপদ থাকার চারটি উপায় হলো—

খালি পায়ে বা ভেজা হাতে বৈদ্যুতিক সুইচ না ধরা;

গ্যাসের চুলা ও বিদ্যুৎ ব্যবহারের পর বন্ধ রাখা;

আগুনের ব্যবহারে সতর্ক থাকা;

অপরিচিতদের পরিচয় জেনে ঘরের দরজা খোলা।

ছ) বাংলাদেশ একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র।

গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে রাষ্ট্র পরিচালিত হয় বলে বাংলাদেশকে গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র বলা হয়।

গণতন্ত্রচর্চার চারটি ক্ষেত্র হলো—

পরিবার, কর্মক্ষেত্র, বিদ্যালয়, রাষ্ট্র পরিচালনা।

জ) গারোদের ঐতিহ্যবাহী উৎসবের নাম ওয়াংগালা।

সূর্য দেবতা সালজংয়ের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতাস্বরূপ নতুন শস্য উৎসর্গ করে তারা এই উৎসব পালন করে।

গারোদের ঐতিহ্যবাহী উৎসব সম্পর্কে চারটি বাক্য নিম্নরূপ—

সাধারণত নতুন শস্য ওঠার সময় এ উৎসবটি হয়;

উৎসবের শুরুতে তারা উৎপাদিত শস্য অর্ঘ্য হিসেবে নিবেদন করে;

অক্টোবর বা নভেম্বর মাসে এ উৎসব হয়;

বিভিন্ন ধরনের বাদ্য-বাজনা বাজিয়ে এই উৎসব পালন করা হয়।

ঝ) সার্ক হলো দক্ষিণ এশীয় আঞ্চলিক সহযোগিতা সংস্থা।

সার্কের আটটি সদস্য রাষ্ট্র হলো—বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, নেপাল, ভুটান, মালদ্বীপ ও আফগানিস্তান।

সার্কের চারটি লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য নিম্নরূপ—

সদস্য দেশগুলোকে বিভিন্ন বিষয়ে আত্মনির্ভরশীল হতে সাহায্য করা;

সদস্য দেশগুলোর অর্থনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক অবস্থার দ্রুত উন্নয়ন;

দেশগুলোর মধ্যে ভ্রাতৃত্ব সৃষ্টি ও পরস্পর মিলেমিশে চলা;

সদস্য দেশগুলোর স্বাধীনতা রক্ষা ও ভৌগোলিক সীমা মেনে চলা।

ঞ) ইউনিসেফের পুরো নাম—জাতিসংঘ আন্তর্জাতিক শিশু তহবিল।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

বিশ্বের শিশুদের শিক্ষা, স্বাস্থ্যসহ নানামুখী উন্নয়নে ইউনিসেফ কাজ করে।

ইউনিসেফের চারটি কাজ হলো—

শিশুদের প্রাথমিক শিক্ষায় সহায়তা করা;

গ্রামে বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ করা;

গ্রামে স্বাস্থ্যসম্মত পায়খানা তৈরি করা;

মা ও শিশুর স্বাস্থ্য রক্ষায় বিভিন্ন প্রতিষেধক টিকা প্রদান।

এই বিভাগের আরও খবরঃ