website page counter ৬৮ শিক্ষা ক্যাডার কর্মকর্তা বরখাস্ত হচ্ছেন - শিক্ষাবার্তা ডট কম

শুক্রবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

৬৮ শিক্ষা ক্যাডার কর্মকর্তা বরখাস্ত হচ্ছেন

বরখাস্ত হচ্ছেন বিসিএস সাধারণ শিক্ষা ক্যাডারে ৬৮ জন কর্মকর্তাসহ একই কলেজের মোট ৭২ জন। কোচিংয়ের নামে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগে এসব কর্মকর্তাকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। অভিযুক্তরা সবাই রাজশাহীর নিউ গভঃ মডেল কলেজে কর্মরত। মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ থেকে সোমবার (২ সেপ্টেম্বর) এসব কর্মকর্তাকে শোকজ নোটিশ পাঠনো হয়। নোটিশে, কোচিংয়ের নামে অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগে কেন তাদের ‘চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হবে না’ তা জানতে চাওয়া হয়েছে এ ৭২ জনের কাছে। তাদের মধ্যে ৬৮ জন শিক্ষা ক্যাডার ও বাকী চারজন প্রদর্শক, লাইব্রেরিয়ান, সহকারি লাইব্রেরিয়ান ও শরীরর্চ্চা শিক্ষক।

অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে প্রধান শিক্ষক বরখাস্ত
জানা গেছে, রাজশাহীর নিউ গভঃ ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ এস এম জর্জিস কাদির অনান্য শিক্ষকদের সহায়তায় ২০১৭ খ্রিষ্টাব্দের ডিসেম্বর মাসে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে ‘বিশেষ পরিচর্যা ফি’ বাবদ ১৫ লাখ ৫৮ হাজার টাকা অতিরিক্ত আদায় করেন। আট শতাধিক পরীক্ষার্থীর কাছ থেকে মাথাপিছু দুই হাজার টাকা করে আদায় করা হয়। এর দু-একদিনই পরই এ টাকা শিক্ষার্থীদের ফেরত দেয় কলেজ কর্তৃপক্ষ।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের এক নির্দেশনা বিশেষ পরিচর্যা ফি বাবদ ১ হাজার ২০০ টাকা আদায় করার কথা বলা থাকলেও শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ২ হাজার টাকা করে আদায় করা হয়। পরে টাকা ফেরত দিলেও প্রতি শিক্ষার্থীর কাছ থেকে অতিরিক্ত ৮০০ টাকা আদায় করে কলেজ কর্তৃপক্ষ। এ অভিযোগে এ ৭২ জনকে অভিযুক্ত করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ। তাই তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। প্রথম ধাপ হিসেবে অসদাচরণের অভিযোগে অভিযুক্ত করে শোকজ করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। জবাব সন্তোষজনক না হলে বরখাস্ত করা হবে তাদেরকে।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. সোহরাব হোসাইন স্বাক্ষরিত শোকজ নোটিশে বলা হয়, সরকারি কর্মকর্তা হিসেবে অতিরিক্ত ফি গ্রহণ সরকারি চাকরি শৃঙ্খলা ও আচরণ বিধিমালার পরিপন্থি ও এ বিধিমালা অনুযায়ী শাস্তিযোগ্য অপরাধ।

তাই শোকজ নোটিশে অসদাচরণের অভিযোগে অভিযুক্তদের কেন ‘চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হবে না’ তার কারণ জানতে চাওয়া হয়েছে এসব কর্মকর্তার কাছে। আগামী ১০ কার্যদিবসের মধ্যে এসব কর্মকর্তাকে শোকজের জবাব দিতে বলা হয়েছে। এসব কর্মকর্তা আত্মপক্ষ সমর্থনে শুনানির সুযোগ চাইলে তা জাবাবে উল্লেখ করতে বলা হয়েছে এসব কর্মকর্তাকে।

এই বিভাগের আরও খবরঃ