website page counter জাতীয় ঈদগাহে প্রধান জামাত সকাল ৮টায় - শিক্ষাবার্তা ডট কম

বৃহস্পতিবার, ২২শে আগস্ট, ২০১৯ ইং, ৭ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

জাতীয় ঈদগাহে প্রধান জামাত সকাল ৮টায়

নিজস্ব প্রতিবেদক :

যথাযথ ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে আগামীকাল সোমবার সারা দেশে পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপিত হবে। জাতীয় ঈদগাহ ময়দানের দেশের প্রধান ঈদ জামাত সকাল সাড়ে ৮টায় অনুষ্ঠিত হবে। এই জামাতকে কেন্দ্র করে সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। তবে বৃষ্টির কারণে এখানে জামাত ব্যাহত হলে সকাল সাড়ে ৮টায় জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে তা অনুষ্ঠিত হবে।

ওই নামাজে ইমামতি করবেন বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের জ্যেষ্ঠ পেশ ইমাম হাফেজ মুফতি মাওলানা মিজানুর রহমান। বিকল্প ইমাম হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপপরিচালক ড. মাওলানা মুশতাক আহমদ।

এ ছাড়া ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে সহকারী জনসংযোগ কর্মকর্তা শায়লা শারমীন জানান, পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে পর্যায়ক্রমে পাঁচটি ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে। প্রথম জামাত সকাল ৭টায়, দ্বিতীয় জামাত সকাল ৮টায়, তৃতীয় জামাত সকাল ৯টায়, চতুর্থ জামাত সকাল ১০টায় এবং পঞ্চম ও সর্বশেষ জামাত সকাল পৌনে ১১টায় অনুষ্ঠিত হবে।

শায়লা শারমীন আরো জানান, প্রথম জামাতে ইমামতি করবেন বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের পেশ ইমাম মুফতি মাওলানা মুহিব্বুল্লাহিল বাকী নদভী, দ্বিতীয় জামাতে ইমামতি করবেন বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা মুফতি মুহীউদ্দিন কাসেম, তৃতীয় জামাতে ইমামতি করবেন জামিয়া শাবইয়্যাহ মালিবাগ জামে মসজিদের খতিব মাওলানা মুফতি সিবগাতুল্লাহ নূর, চতুর্থ জামাতে ইমামতি করবেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মুফতি মাওলানা মোহাম্মদ আবদুল্লাহ এবং পঞ্চম ও সর্বশেষ জামাতে ইমামতি করবেন জামাতে আল আজহার একাডেমিক প্রিন্সিপাল ড. মাওলানা আবদুল কাইয়ুম আযহারী।

এদিকে ঈদ জামাত নিয়ে আজ রোববার ঢাকা দক্ষিণের মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, ‘আগামীকাল সকাল ৮টায় দেশের প্রধানতম ঈদের জামাত জাতীয় ঈদগাহে অনুষ্ঠিত হবে। এ ঈদগাহে কমবেশি এক লাখ মুসল্লি নামাজ আদায় করবেন। তার জন্য যাবতীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। যদি দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়, তাহলে ঈদের জামাত আগামীকাল সোমবার সকাল সাড়ে ৮টায় জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে অনুষ্ঠিত হবে।’

‘এ ছাড়া নারীদের জন্য আলাদা ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে নারী মুসল্লিদের জন্য ঈদের নামাজ পড়ার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। এখানে পাঁচ হাজার নারী মুসল্লি একসঙ্গে নামাজ আদায় করতে পারবেন।’

মেয়র আরো বলেন, ‘ঈদগাহ মাঠে অজুর পর্যাপ্ত ব্যবস্থা করা হয়েছে। নামাজ আদায়ের আগে একসঙ্গে দেড়শ পুরুষ মুসল্লি ও ৫০ নারী মুসল্লি অজু করতে পারবেন। পানযোগ্য পানি এবং পর্যাপ্ত টয়লেট থাকবে। এবার প্রথমবারের মতো ঈদগাহ ময়দানের বাইরেও বোতলজাত পানির ব্যবস্থা করা হচ্ছে। ঈদগাহে মুসল্লিদের জরুরি স্বাস্থ্যসেবাদানে মেডিকেল টিম প্রস্তুত থাকবে। সার্বক্ষণিক নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে এবং জেনারেটর স্ট্যান্ডবাই থাকবে।’

বিগত কয়েক বছরের মতো এবারও ঈদ জামাত চলাকালীন আবহাওয়াজনিত কারণে বজ্রপাত ঠেকাতে ঈদগাহে বজ্র প্রতিরোধক দণ্ড স্থাপন করা হয়েছে এবং জরুরি টেলিফোন বুথ ও পর্যাপ্ত গাড়ি পার্কিংয়ের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে বলেও জানান মেয়র।

গতকাল শনিবার সদ্য বিদায়ী ডিএমপির কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া জানিয়েছিলেন, জাতীয় ঈদগাহে কোনো ধরনের ব্যাগ, ছুরি, দিয়াশলাই ও ধার্য পদার্থ নিয়ে প্রবেশ করা যাবে না। নিরাপত্তার স্বার্থে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থানে থাকবে। ঈদ জামাতকে ঘিরে জাতীয় ঈদগাহ ও জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে পাঁচ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে ডিএমপি। এর মধ্যে পোশাকধারী পুলিশ, সাদা পোশাকে ডিবি পুলিশ, সোয়াট, সিটিটিসি, বম্ব ডিসপোজাল ইউনিট, ওয়াচ টাওয়ার, আর্চওয়ে ও সিসিটিভি মনিটরিং ব্যবস্থা থাকবে। এর মধ্য দিয়েই মুসল্লিদের ঈদ জামাতে প্রবেশ করতে হবে।

এই বিভাগের আরও খবরঃ