website page counter ২১ জুলাই বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি (বিটিএ)’র সংবাদ সম্মেলন - শিক্ষাবার্তা ডট কম

শনিবার, ২৪শে আগস্ট, ২০১৯ ইং, ৯ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

২১ জুলাই বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি (বিটিএ)’র সংবাদ সম্মেলন

বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি (বিটিএ)’র চলমান কর্মসূচির অংশ হিসেবে আগামী ২১ জুলাই ২০১৯ রবিবার সকাল ১১টায় “জাতীয় প্রেস ক্লাব -এর তৃতীয় তলায় মাওলানা আকরাম খাঁ হল” এ “এমপিওভ‚ক্ত শিক্ষক-কর্মচারিদের বেতন থেকে অবসর সুবিধা বোর্ড ও কল্যাণ ট্রাস্টের জন্য ১০% কর্তনের প্রজ্ঞাপন বাতিল” এবং “মাধ্যমিক শিক্ষা জাতীয়করণ” -এর দাবীতে” বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি (বিটিএ)’র সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।

বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীগণ ‘মাধ্যমিক শিক্ষা জাতীয়করণ’ এর জন্য দীর্ঘদিন যাবৎ সাংবাদ সম্মেলন, মানববন্ধন, বিক্ষোভ মিছিল, প্রতীক অনশন, অবস্থান ধর্মঘট, সমাবেশ ও মহাসমাবেসসহ বিভিন্ন সময়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেন। গত ২৯ মার্চ ২০১৭ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে স্মরণকালের সর্ববৃহৎ জাতীয় শিক্ষক-কর্মচারি সমাবেশসহ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেন। গত ২২ মে ২০১৭ সংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে ঘোষিত ১ জুন থেকে ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৭ পর্যন্ত বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেন। গত ১৪ মার্চ ২০১৮ জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ‘শিক্ষাব্যবস্থা জাতীয়করণ’ -এর দাবীতে অনুষ্ঠিত মহাসমাবেশে প্রায় ৩ লক্ষাধিক শিক্ষক-কর্মচরীর উপস্থিতি সত্বেও দাবী পূরণের বিষয়ে সরকারের নীতিনির্ধারণী পর্যায়ে আলোচনা ও আশ্বাসের প্রেক্ষিতে আন্দোলন স্থগিত করা হয়। ফলে ডিসেম্বর ২০১৮ একাদশ জাতীয় নির্বাচনের পূর্বে “শিক্ষক বান্ধব মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা” এমপিওভ‚ক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের জন্য নিঃশর্তভাবে ৫% বার্ষিক ইনক্রিমেন্ট ও বৈশাখী ভাতা প্রদান করায় বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীগণ মানীয় প্রধানমন্ত্রীসহ সরকারকে সাধুবাদ জানান।

এমতাবস্থায় শিক্ষক-কর্মচারীদের দীর্ঘদিনের নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলনের কারণে যখন বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারিদের ন্যায়সঙ্গত দাবীÑ “মাধ্যমিক শিক্ষা জাতীয়করণ” -এর বিষয়ে সরকার ইতিবাচক মনোভাব নিয়ে অগ্রসর হচ্ছিলেন। ঠিক সেই মুহূর্তে শিক্ষক সংগঠনসমূহের প্রতিনিধিদের সাথে আলোচনা ছাড়াই “মাধ্যমিক শিক্ষা জাতীয়করণ” এর নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলনকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য হঠাৎ করে গজিয়ে ওঠা শিক্ষক স্বার্থবিরোধী তথাকথিত সুবিধাভোগী শিক্ষক সংগঠনের কতিপয় নেতার প্ররোচনা ও যোগসাজসে বিগত ১৫ জুন ২০১৭ কল্যাণ ট্রাস্ট এবং ২০ জুন ২০১৭ অবসর সুবিধা বোর্ডের জন্য বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারিদের বেতন থেকে ১০% কর্তন করার জন্য পৃথক দু’টি অযৌক্তিক ও অমানবিক গেজেট প্রকাশ করায় বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি (বিটিএ)’র ব্যানারে সারা দেশের শিক্ষক-কর্মচারীদের আন্দোলনের ফলে তা স্থগিত করা হয়। পরবর্তীতে ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখ একাদশ জাতীয় নির্বাচনের মাত্র কয়েকদিন পূর্বে ১০% কর্তনের জন্য পুনরায় একটি আদেশ জারি করেন এবং শিক্ষক-কর্মচরীদের প্রতিবাদের প্রেক্ষিতে শিক্ষা সচিব জনাব সোহরাব হোসাইন ভুল স্বীকার করে উক্ত আদেশটিও প্রত্যাহার করে নেন। আবার গত ৯ জানুয়ারি ২০১৯ তারিখ অবসর সুবিধা বোর্ডের সভায় উপস্থিত সদস্যবৃন্দের সামনে অতিরিক্ত ৪% কর্তন না করার জন্য অভিমত পূনর্ব্যক্ত করেন।

পরিতাপের বিষয় শিক্ষক সংগঠনসমূহের প্রতিনিধিদের সাথে কোনরূপ আলোচনা ছাড়াই গত ১৫ এপ্রিল ২০১৯ তারিখ অতিরিক্ত ৪% সহ মোট ১০% কর্তনের জন্য মহাপরিচালক, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর কে লিখিত আদেশ প্রদান করায় এপ্রিল ২০১৯ থেকে শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতন থেকে অতিরিক্ত ৪% সহ মোট ১০% কর্তন করা হচ্ছে। ফলে সারাদেশের শিক্ষক-কর্মচারীগণ অত্যন্ত মর্মাহত ও বিক্ষুব্ধ।

এমতাবস্থায় আগামী ঈদ-উল-আযহার পূর্বেই সরকারি শিক্ষক-কর্মচারীদের ন্যায় বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীদের পূর্ণাঙ্গ উৎসব ভাতা ও বাড়ি ভাড়া প্রদানসহ “এমপিওভ‚ক্ত শিক্ষক-কর্মচারিদের বেতন থেকে অবসর সুবিধা বোর্ড ও কল্যাণ ট্রাস্টের জন্য ১০% কর্তনের প্রজ্ঞাপন বাতিল” এবং “মাধ্যমিক শিক্ষা জাতীয়করণ” -এর দাবীতে পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণার লক্ষ্যে আগামী ২১ জুলাই ২০১৯ রবিবার সকাল ১১টায় বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি (বিটিএ)’র সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে

এই বিভাগের আরও খবরঃ