website page counter ‘রিকশা গার্ল’-এর শুটিংসেট থেকে... - শিক্ষাবার্তা ডট কম

বুধবার, ১৭ই জুলাই, ২০১৯ ইং, ২রা শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

‘রিকশা গার্ল’-এর শুটিংসেট থেকে…

আমরা সবসময়ই মানসম্পন্ন সিনেমা নির্মাণের চেষ্টা করি এবং এখন বাংলাদেশেই আন্তর্জাতিকমানের সিনেমা নির্মিত হচ্ছে। আমরা এমন সব সিনেমা বানাতে চাই, যা আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশের নামকে উজ্জ্বল করবে। —অমিতাভ রেজা চৌধুরী, পরিচালক

এক সিনেমার দুই নাম। বাংলায় ‘নাইমার রঙ’ আর ইংরেজিতে ‘রিকশা গার্ল’। তবে বেশিরভাগ মানুষই জানেন অমিতাভ রেজা চৌধুরীর নতুন সিনেমার নাম যে রিকশা গার্ল। শুরু থেকেই তো এই নামে খবরের পাতায় শিরোনাম হয়েছে। যাকে ঘিরে আবর্তিত হয়েছে এই সিনেমা তিনি অভিনয়শিল্পী নভেরা রহমান। সিনেমায় তাঁকে দেখা যাবে নাইমা চরিত্রে। এপ্রিলের দ্ব্বিতীয় সপ্তাহ থেকেই ‘রিকশা গার্ল’ হয়ে ক্যামেরার সামনে দাঁড়ান নভেরা। প্রথমে রাজশাহী, এরপর পাবনা, এখন শুটিং হচ্ছে গাজীপুরে। গতকাল শুটিংসেটেই কথা হয় নভেরার সাথে। তিনি বলেন, ‘দারুণ একটা কাজ করছি। অনেককিছু শিখছি। আমার কাছে মনে হচ্ছে, আমি শিখতে শিখতে কাজটি করছি। পুরোপুরি শেষ করার পর বলতে পারবো কতটুকু শিখলাম!’ পরিচালক অমিতাভ রেজা চৌধুরী বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে ছবির গল্প, চরিত্র ও শুটিং লোকেশন নিয়ে কাজ করেছি। গাজীপুরের এই সেট তৈরি করতেও প্রায় ১০ দিন সময় লেগেছে। আমরা সবসময়ই মানসম্পন্ন সিনেমা নির্মাণের চেষ্টা করি এবং এখন বাংলাদেশেই আন্তর্জাতিকমানের সিনেমা নির্মিত হচ্ছে। আমরা এমন সব সিনেমা বানাতে চাই, যা আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশের নামকে উজ্জ্বল করবে।’

শুটিংসেট থেকে জানা যায়, নাইমার গল্পটিও। মফস্বলের মেয়ে নাইমা। বাবা-মা ও ছোট বোনসহ ৪ জনের সংসার। বাবা রিকশাচালক। মা বাড়ি বাড়ি গিয়ে বুয়ার কাজ করেন, আর বোনটি স্কুলে পড়ে। নাইমার আঁকার ক্ষমতা অসাধারণ। সে আলপনা আঁকার কাজ করে। কিন্তু সে যথাযথ পারিশ্রমিক পায় না। এরমধ্যে হঠাত্ করে অসুস্থ হয়ে যায় নাইমার বাবা এবং

চুরির অপবাদে চাকরিচ্যুত হয় মা। আর বাবার চিকিত্সা ও পরিবারের অসহায় অবস্থার প্রেক্ষিতে জীবিকার তাগিদে রাজধানী ঢাকায় আসে নাইমা। গৃহকর্মী হিসেবে কাজ শুরু করে। কিন্তু স্বাধীনচেতা নাইমা চার দেয়ালের অট্টালিকায় আটকা পড়ে হাঁসফাঁস করতে থাকে। পালিয়ে যায় সে। নিজের বেশ বদলে শুরু করে রিকশা চালানো। কিন্তু এই ভালো সময় খুব একটা দীর্ঘ হয় না। নাইমার ছদ্মবেশ বেশিদিন টিকে থাকে না। ধরা পড়ে যায় সে। বিতাড়িত নাইমা শেষমেষ আশ্রয় পায় মরিয়মের গ্যারেজে। নারী গ্যারেজ মালিক মরিয়মকে দেখে নাইমা অনুপ্রেরণা পায়। এভাবেই গড়ে উঠেছে সিনেমাটির চিত্রনাট্য। এই সিনেমার একটি বিশেষ চরিত্রে অতিথি শিল্পী হিসেবে শাকিব খান অভিনয় করবেন। আরো অভিনয় করছেন মোমেনা চৌধুরী, গুলশান আরা আক্তার চম্পা, মাসুমা রহমান নাবিলা, নাসির উদ্দিন খান, এলেন শুভ্র, অপূর্ব রূপকথা, নরেশ, আব্দুল আজিজ প্রমুখ। ভারতীয় বংশোদ্ভুত যুক্তরাষ্ট্রের লেখিকা মিতালি পারকিনসের কিশোর সাহিত্য রিকশা গার্ল অবলম্বনে ছবিটি তৈরি হচ্ছে। এটি চিত্রনাট্য করেছেন নাফিজ আমিন ও শর্বরী জোহরা আহমেদ

এই বিভাগের আরও খবরঃ