website page counter শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধি নির্বাচনে সুশৃঙ্খল ভোট – শিক্ষাবার্তা

22 March 2019,

শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধি নির্বাচনে সুশৃঙ্খল ভোট

অনলাইন ডেস্ক ||

শিক্ষার্থীদের সুশৃঙ্খল লাইন। তারা অপেক্ষা করছে প্রতিনিধি নির্বাচনে ভোট দেওয়ার জন্য। সকাল থেকে লাইনে দাঁড়ালেও তাদের মধ্যে রয়েছে স্বস্তির ছাপ। বিকেলে জানা যাবে, কারা তাদের প্রতিনিধিত্ব করছে।

বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) সকাল ১০টার দিকে এমন চিত্র দেখা যায় রাউজান আর আর এ সি মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে।

সকাল ৯টা থেকে চলছে স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচনে ভোটগ্রহণ। বিরতিহীনভাবে ভোটগ্রহণ চলবে দুপুর ২টা পর্যন্ত।

শিক্ষার্থীদের এ নির্বাচনে রিটার্নিং অফিসার, ভোটগ্রহণ কর্মকর্তা, শৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্বে রয়েছেন শিক্ষার্থীরাই। শিক্ষকরা শুধু পর্যবেক্ষণ ও সমন্বয় করছেন।

রাউজান আর আর এ সি মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক ও স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন সমন্বয়কারী মোহাম্মদ আলী  বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধি নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলছে। সকাল ৯টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। দুপুর ২টা পর্যন্ত চলবে।’

তিনি জানান, নির্বাচনে মোট প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে ১২ জন। তাদের মধ্য থেকে ৮ জন নির্বাচিত হবে। মোট ভোটার রয়েছে ১ হাজার ৮৯০ জন। সর্বোচ্চ ভোট যিনি পাবেন তিনি হবেন চিফ মনিটর।

১০ম শ্রেণি থেকে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন কাইফা মনি। তিনি বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের যেকোনো সমস্যা সমাধানে কাজ করবো। বিদ্যালয় পরিস্কার পরিচ্ছন্ন, ক্লাসরুমে বেঞ্চ সংকট, হোয়াইট বোর্ড সংকট নিরসনে স্যারদের সঙ্গে কথা বলে সমাধানে কাজ করবো।’

তিনি নির্বাচিত না হয়ে তার প্রতিদ্বন্দ্বী অন্য কেউ নির্বাচিত হলেও তার সঙ্গে মিলে কাজ করবেন বলে জানান কাইফা মনি।

রাউজান আর আর এ সি মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন।

রাউজান আর আর এ সি মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোস্তাক আহমদ বলেন, ‘নির্বাচিত প্রতিনিধিরা শিক্ষার্থীদের সমস্যা নিয়ে কাজ করবে। আমাদেরকে তাদের সমস্যা জানিয়ে তা সমাধানে তারা কাজ করবে।’

মোস্তাক আহমদ বলেন, ‘শিক্ষার্থীরা তাদের প্রতিনিধি নির্বাচনে সকাল থেকে লাইনে দাঁড়িয়েছে সুশৃঙ্খলভাবে। তাদের কাছ থেকে অনেক কিছু শেখার আছে। এখানে কেউ কারো বিরুদ্ধে অভিযোগ করছে না, কেউ প্রভাব খাটানোর চেষ্টা করছে না। আমাদের দেশের নির্বাচনে এরকম হওয়া উচিত।’

স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচনের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের সহযোগিতাপূর্ণ মনোভাব সৃষ্টি ও নেতৃত্ব সৃষ্টি হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন মোস্তাক আহমদ।

বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে শিক্ষার্থীরা ভোট চেয়ে হাতে লেখা পোস্টার সাঁটিয়েছে। এসব পোস্টারে তাদের বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি তুলে ধরেছে।

সূত্র : বাংলা নিউজ

এই বিভাগের আরও খবর