অধিকার ও সত্যের পক্ষে

কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ডের ১৪ কেন্দ্রের শিক্ষা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মন্ত্রণালয়ে চিঠি

 শিক্ষাবার্তা ডেস্ক ||

চলতি মাসের ২ তারিখ থেকে শুরু হয়েছে এসএসসি পরীক্ষা। পরীক্ষার প্রথম দিনই কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষার্থীদের মাঝে প্রশ্নপত্র সরবরাহের ক্ষেত্রে অন্তত ১৪টি কেন্দ্রে তালগোল পাকিয়ে ফেলে সংশ্লিষ্ট কেন্দ্র কর্তৃপক্ষ। তাই প্রশ্ন সরবরাহে বিভিন্ন অনিয়মের প্রমাণ পেয়ে এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট ১৪টি পরীক্ষা কেন্দ্রের দায়িত্বশীল কর্মকর্তার বিরুদ্ধে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর মো. রুহুল আমিন ভূঁইয়ার স্বাক্ষরে বুধবার ওই চিঠি পাঠানো হয়। বৃহস্পতিবার বিকেলে কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ডের দায়িত্বশীল একটি সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

বোর্ড সূত্র জানায়, গত ২ ফেব্রুয়ারি থেকে কুমিল্লাসহ দেশের সকল শিক্ষাবোর্ডের অধীনে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হয়। ওইদিন বাংলা প্রথমপত্রের পরীক্ষা হয়। পরীক্ষার প্রথমদিন কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ডের অধীন অন্তত ১৪টি কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীদের মাঝে প্রশ্নপত্রের ভুল সেট সরবরাহ এবং বিলম্বে প্রশ্নপত্র সরবরাহসহ দায়িত্বে অবহেলা ও অনিয়মের অভিযোগ ওঠে।

কেন্দ্রগুলো হচ্ছে- কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের ২টি, দাউদকান্দির ১টি, দেবিদ্বারের ১টি, চাঁদপুরের হাজীগঞ্জের ১টি, কচুয়ার ১টি, মতলব উত্তরের ১টি, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদরের ১টি, বাঞ্ছারামপুরের ১টি, নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের ১টি, সেনবাগের ১টি, ফেনী সদরের ১টি, পরশুরামের ১টি ও সোনাগাজীর ১টি।

এ ব্যাপারে বোর্ড কর্তৃপক্ষের গঠিত কমিটি তদন্তের মাধ্যমে অভিযোগের সত্যতা পায়। কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর মো. রুহুল আমিন ভূঁইয়া সাংবাদিকদের জানান, বোর্ডের আওতাধীন যে সকল কেন্দ্রে এক সিলেবাসের প্রশ্নে অন্য সিলেবাসের পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়েছে সে সকল কেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তাদের কাছ থেকে পাওয়া তথ্য ছক আকারে বুধবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপসচিব (সরকারি মাধ্যমিক-১, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ) বরাবর চিঠি পাঠানো হয়েছে। মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা পেলে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

একই ধরনের আরও সংবাদ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.