অধিকার ও সত্যের পক্ষে

হোস্টেলে ছাত্রীর উপর সন্ত্রাসী হামলার বিচার দাবি

 নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

ময়মনসিংহ টিচার্স ট্রেনিং কলেজের বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলের এমএড শিক্ষার্থী ঝুনুর ওপর বহিরাগত সন্ত্রাসীদের হামলার ঘটনা ঘটেছে। আজ শনিবার দুপুরে ময়মনসিংহ প্রেসক্লাব মিলনায়তনে হামলার বিচার দাবি করে সংবাদ সম্মেলন করে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী ও তার পরিবারের সদস্যরা। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন শিক্ষার্থী ঝুনু।

ঝুনু জানান, গত ১০ জানুয়ারি দুপুরে ছাত্রী হোস্টেলের ছাদে কাপড় শুকানোকে কেন্দ্র করে হোস্টেলের শম্পার সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়। এর জের ধরে ওইদিন রাত ৮টার সময় ডাইনিংয়ে রাতের খাবার খাওয়ার জন্য গেলে শম্পার ভাড়াটে গুণ্ডা বাহিনী রাসেল পাঠানের নেতৃত্বে ১০-১২ জন সন্ত্রাসী ঝুনুর ওপর হামলা করে তাকে বেদম মারধর করে। এই ঘটনা কলেজ অধ্যক্ষকে জানানোর পরও কোনও ব্যবস্থা না নেওয়ায় মধ্যরাতে ঝুনু রাগে ক্ষোভে নিজের রুমের ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। তখন একই রুমের সহপাঠীরা তাকে আত্মহত্যা করতে বাধা দেন। পরের দিন অধ্যক্ষ বরাবর বিচার চেয়ে আবেদন করেন ঝুনু।

তিনি আরও জানান, ১১ জানুয়ারি কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা করতে গেলে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মামলা নেননি। এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্ত্রাসীদের বিচার দাবি করেন তিনি। তবে কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনসুরুল আলম জানান, ছাত্রী নির্যাতনের ঘটনায় থানায় কেউ অভিযোগ নিয়ে আসেননি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানান তিনি।

এ ঘটনার বিষয়ে জানতে হামলার সঙ্গে জড়িত থাকায় অভিযুক্ত রাসেল পাঠানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তাকে মোবাইল ফোনে পাওয়া যায়নি।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে ময়মনসিংহ টিচার্স ট্রেনিং কলেজের অধ্যক্ষ নাসির উদ্দিন জানান, ঘটনা তদন্তে কলেজের সহযোগী অধ্যাপক আনিসুজ্জামানকে প্রধান করে চার সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী সাত দিনের মধ্যে কমিটিকে রিপোর্ট জমা দেওয়ার কথা বলা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

শিক্ষা বার্তা-আ.আ.হ/মৃধা

একই ধরনের আরও সংবাদ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.