অধিকার ও সত্যের পক্ষে

চাকরি করতে না দিয়ে বিয়ে দিতে চাওয়ায় ছাত্রীর আত্মহত্যা!

 নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে লিমা দাস (২১) নামের এক কলেজ ছাত্রী আত্মহত্যা করেছেন। শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে চর জব্বার থানা পুলিশ। নিহত লিমা দাস চর আমান উল্যা স্বপন মার্কেট এলাকার লিটন চন্দ্র দাসের মেয়ে। তিনি সৈকত সরকারি কলেজের বাংলা বিভাগের অনার্স (সম্মান) তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী ছিলেন।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, কয়েকদিন আগে একটি এনজিওতে মাঠকর্মী হিসেবে চাকরি হয় লিমার। নিজের ইচ্ছার বিরুদ্ধে বিয়ের দেয়ার কথা নিয়ে মা-বাবার সঙ্গে তার মান-অভিমান হয়। তার ইচ্ছা ছিল আরও বছর দুয়েক পড়ালেখা চালানোর পাশাপাশি চাকরি করে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করার। সেই ইচ্ছা আর পূরণ হলো না লিমার। তার চাকরিতে যোগদানের ব্যাপারে পরিবার থেকে বাধা দেয়া হয়।

এসবের জের ধরে আত্মহত্যা করতে পারেন লিমা, এমনটি ধারণা করছে তার পরিবার। তবে মরদেহের ময়নাতদন্তের পর নিশ্চিত হওয়া যাবে, এটি আত্মহত্যা কি না।

নিহতের বাবা লিটন চন্দ্র দাস জানান, শুক্রবার সকালে তিনি কাজে বের হয়ে যান। কেউ ঘরে না থাকার সুযোগে ঘরের ধরনার সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁছিয়ে আত্মহত্যা করেন লিমা! পরে তার ছোট মেয়ে মনিরা দাস লিমাকে ঝুলতে দেখে চিৎকার করে। এতে তারা এসে মরদেহ ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান।

চর জব্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নিজাম উদ্দিন জানান, নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পরিবারের পক্ষ থেকে কোনও অভিযোগ থাকলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাগ্রহণ করা হবে।

শিক্ষা বার্তা-আ.আ.হ/মৃধা

একই ধরনের আরও সংবাদ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.