অধিকার ও সত্যের পক্ষে

মাদরাসার ছাত্রকে শিকলে বেঁধে শিক্ষকের নির্যাতন!

 নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

লক্ষ্মীপুরে ইয়াছিন আরাফাত নামের এক ছাত্রকে শিকল দিয়ে বেঁধে রেখে নির্যাতন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে মাদরাসা শিক্ষকের বিরুদ্ধে। আহত আরাফাত সদর উপজেলার লাহারকান্দি গ্রামের আবদুর লতিফের ছেলে এবং রওযাতুল উলুম ইসলামিয়া মাদরাসার হিফজুল কোরআন বিভাগের ছাত্র।

বৃহস্পতিবার সকালে গুরুতর আহত অবস্থায় ওই ছাত্রকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করে স্থানীয়রা। এর আগে সদর উপজেলার পশ্চিম লাহারকান্দি এলাকার রওযাতুল উলুম ইসলামিয়া মাদরাসায় এ ঘটনা ঘটে। নির্যাতনের ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত শিক্ষক আবদুল কাদের ফয়েজী পলাতক রয়েছেন।

আহত ছাত্রের ভগ্নিপতি মো. সলিম বলেন, হিফজুল কোরআন বিভাগের ছাত্র ইয়াছিন আরাফাত বেশ কিছু সমস্যার জন্য বর্তমান মাদরাসা থেকে অন্যত্র ভর্তি হতে চায়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মাদরাসার শিক্ষক আবদুল কাদের তাকে শিকল দিয়ে বেঁধে বেধড়ক মারধর করেন। পরে তাকে গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) আনোয়ার হোসেন বলেন, ওই ছাত্রের শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। হাসপাতালে তার চিকিৎসা চলছে।

লক্ষ্মীপুরের পুলিশ সুপার আসম মাহাতাব উদ্দিন বলেন, খবর পেয়ে হাসপাতাল ও ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। অভিযোগ পেলে এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শিক্ষা বার্তা-আ.আ.হ/মৃধা

একই ধরনের আরও সংবাদ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.