অধিকার ও সত্যের পক্ষে

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ প্রস্তুতি-১

 নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

আগামী ফেব্রুয়ারিতে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা। ইতোমধ্যে প্রায় সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর। ১৩ হাজার ১০০ টি আসনের বিপরীতে আবেদন পড়েছে প্রায় ২৪ লক্ষ। প্রতিযোগীতাপূর্ণ এই পরীক্ষার জন্য আমাদের ধারাবাহিক আয়োজন ‘প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ প্রস্তুতি’। আজকের প্রথম কিস্তিতে আলোচনা করা হয়েছে পরীক্ষা পদ্ধতি, মানবন্টন ও সিলেবাস নিয়ে।

পরীক্ষা পদ্ধতি: প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক এবং প্রাক-প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক নিয়োগপরীক্ষার বিষয়বস্তু বিগত বছরের মতো থাকলেও এবার প্রশ্নের মান উন্নত হবে। আগে লিখিত পরীক্ষায় মাধ্যমিক পর্যায় থেকে প্রশ্ন করা হলেও এবার উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায় থেকেও প্রশ্ন আসবে। ৮০ নম্বরের লিখিত এবং ২০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষাসহ মোট ১০০ নম্বরের পরীক্ষা হবে। লিখিত পরীক্ষা নেওয়া হবে বহু নির্বাচনী বা এমসিকিউ পদ্ধতিতে। প্রশ্ন করা হবে বাংলা, ইংরেজি, গণিত এবং সাধারণ জ্ঞান-দৈনদিন বিজ্ঞান ও কম্পিউটার এই চারটি বিষয়ে।

প্রতিটি বিষয় থেকে ২০টি করে মোট ৮০টি এমসিকিউ প্রশ্ন থাকবে। প্রতিটি প্রশ্নের মান ১। সাবধান, নেগেটিভ মার্কিং মানবণ্টনে পরিবর্তন না এলেও এবার চালু হচ্ছে নেগেটিভ মার্কিং। একটি ভুল উত্তরের জন্য কাটা যাবে ০.২৫ নম্বর। ফলে চারটি প্রশ্নের ভুল উত্তর দিলে ১ নম্বর কাটা যাবে। তাই নিশ্চিত না হয়ে কোনো প্রশ্নের উত্তর দেওয়া ঠিক হবে না।

সিলেবাস:

ইংরেজি: গ্রামারে Right forms of verb, Tense, Preposition, Parts of Speech, Voice, Narration, Spelling, Sentence Correction- এর নিয়ম জানতে হবে এবং গ্রামার বইয়ের উদাহরণ থেকে চর্চা করতে হবে। মুখস্থ করতে হবে Phrase and Idioms, Synonym, Antonym. ইংরেজি থেকে বাংলা অনুবাদ আসতে পারে। তাই বিভিন্ন নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন সমাধান করলে ভালো করা সম্ভব।

বাংলা: সন্ধি(২),বিপরীত শব্দ(২/৩),সমার্থক শব্দ(২),শুদ্ধ বানান(২),এককথায় প্রকাশ(২),সমাস(২),বাগধারা(২), কারক-বিভক্তি,ছদ্মনাম/উপাধি,দ্বিরুক্ত শব্দ,ধ্বনি,বর্ণ,বাক্য(সরল,জটিল,যৌগিক),পদ নির্ণয়।

প্রচীন যুগ,মধ্যযুগ* থেকে ১ অথবা ২ মার্কস আসতে পারে তবে মধ্যযুগ বেশি গুরুত্বপূর্ণ,আধুনিক যুগের সাহিত্য কর্মের মধ্যে ভাষা আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক উপন্যাস/রচনাসমগ্র(১/২ মার্কস)এবং পরিচিত কবি সাহিত্যিকের রচনা বা জন্ম মৃত্যু নিয়ে ১/২ মার্কস আসতে পারে যেগুলো পারার মত।

গণিত: দশমিকের (যোগ,বিয়োগ,গুণ*,ভাগ*), শতকরা, লাভ-ক্ষতি, মুনাফা, ল.সা.গু, গ.সা.গু, ঐকিক নিয়ম (কাজ, খাদ্য, সৈন্য), অনুপাত:সমানুপাত, সংখ্যা পদ্ধতি, বীজগাণিতিক মান নির্ণয়, উৎপাদক নির্ণয়, গড়, মধ্যক, প্রচুরক নির্ণয়, ত্রিভুজক্ষেত্র, বর্গক্ষেত্র,
আয়তক্ষেত্রের বেসিক সূত্রের অংক সমূহ, সরলরেখা, ধারা, গাছের উচ্চতা/মিনারের উচ্চতা/মইয়ের দৈর্ঘ্য /সূর্যের উন্নতি কোন ইত্যাদি বিষয়ক অংক সমূহ।

সাধারণ জ্ঞান, দৈনদিন বিজ্ঞান ও কম্পিউটার: এই অংশে ভাল করার জন্য খুব বেশি পড়তে হবেনা।সাধারণ জ্ঞান অংশে ১৪/১৫ টার মত প্রশ্ন আসতে পারে তার ভিতর ১০-১২ টাই হবে সালের রিপিট প্রশ্ন।বাকী ২/৩ টা সাম্প্রতিক বিষায়াবলী দিতে পারে। তারপরও ভাষা আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধ, বাংলাদেশের জনপদ, নদ-নদী, বাংলাদেশের লোকজ ঐতিহ্য অন্তর্জাতিক সংগঠন,জাতিসংঘের অঙ্গসংগঠন,বিশ্বের বিভিন্ন শহরের নাম প্রভৃতি।

বিজ্ঞান থেকে দু’তিনটি কমন প্রশ্ন আসবে যেগুলো চোখের পলকে গোল্লা ভরাট করা যাবে মানে হরহামেশা রিপিটেড সাল।কম্পিউটার থেকে একটি বা দু’টি প্রশ্ন আসবে একেবারে বেসিক কম্পিউটার থেকে। নিজের মগজের সফটওয়্যার থেকে কম্পিউটারের বৃত্ত ভরাট করবেন।

শিক্ষা বার্তা-আ.আ.হ/মৃধা

একই ধরনের আরও সংবাদ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.