অধিকার ও সত্যের পক্ষে

ইতিহাসের এই দিনে || উদ্ভাবক নিকোলা টেসলারের প্রয়াণ

শিক্ষাবার্তা ডট কম ||

ইতিহাস আজীবন কথা বলে। ইতিহাস মানুষকে ভাবায়, তাড়িত করে। প্রতিদিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনা কালক্রমে রূপ নেয় ইতিহাসে। সেসব ঘটনাই ইতিহাসে স্থান পায়, যা কিছু ভালো, যা কিছু প্রথম, যা কিছু মানবসভ্যতার অভিশাপ-আশীর্বাদ।

তাই ইতিহাসের দিনপঞ্জি মানুষের কাছে সবসময় গুরুত্ব বহন করে। এই গুরুত্বের কথা মাথায় রেখে শিক্ষাবার্তা ডট কম পাঠকদের জন্য নিয়মিত আয়োজন ‘ইতিহাসের এই দিন’।

০৭ জানুয়ারি ২০১৯, সোমবার। ২৪ পৌষ, ১৪২২ বঙ্গাব্দ। এক নজরে দেখে নিন ইতিহাসের এ দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনা
১৭৮২- আমেরিকার প্রথম কেন্দ্রীয় ব্যাংক, ব্যাংক অব নর্থ আমেরিকা চালু।
১৭৮৫- ফ্রান্সের জন ব্যাল্ন্চার্ড ও যুক্তরাষ্ট্রের জন জেফার যুক্তরাজ্যের ডোভার থেকে ফ্রান্সের ক্যালাস পর্যন্ত গ্যাস বেলুনে উড়ে যান।
১৭৯৭- বর্তমান ইতালির পতাকা প্রথম ব্যবহার হয়।
১৯২৭- প্রথম ট্রান্সআটলান্টিক টেলিফোন সার্ভিস প্রতিষ্ঠা। নিউইয়র্ক থেকে লন্ডন সংযোগের মাধ্যমে এটার কাজ শুরু হয়।
১৯৫২- মার্কিন প্রেসিডেন্ট হ্যারি ট্রুমেন হাইড্রোজেন বোমা তৈরির কথা জানান।
১৯৫৯- কিউবার ফিদেল ক্যাস্ত্রোর নতুন সরকারকে স্বীকৃতি দেয় যুক্তরাষ্ট্র।
১৯৮৯- জাপানি সম্রাট হিরোহিতোর মৃত্যুর পর আকিহিতো জাপানের নতুন সম্রাট নির্বাচিত হন।

জন্ম
১৮০০- মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ১৩তম রাষ্ট্রপতি মিলার্ড ফিলমোর।
১৯৭৯- বলিউড অভিনেত্রী বিপাসা বসু।
১৯৪৮- মার্কিন রক গায়ক কেন্নি লগ্গিনস।
১৯৪৮- জাপানি ভয়েস অভিনেতা ইচিরু মিজুকি।
১৯৯১- বেলজিয়ান ফুটবল তারকা এডেন হ্যাজার্ড।

মৃত্যু
১৯৪৩- বিখ্যাত সাইবেরিয়ান-আমেরিকান পদার্থবিদ, উদ্ভাবক, ইলেক্ট্রনিক প্রকৌশলী, যন্ত্র প্রকৌশলী নিকোলা টেসলা।
১৮৫৬ সালের ১০ জুলাই তার জন্ম। তিনি আধুনিক পরিবর্তী তড়িৎ প্রবাহ ও তারবিহীন তড়িৎ পরিবহন ব্যবস্থা আবিষ্কারের জন্য সর্বাধিক পরিচিত।
১৮৮৬ সালে টেসলা প্রতিষ্ঠা করেন নিজ কোম্পানি টেসলা ইলেকট্রিক লাইট অ্যান্ড ম্যানুফ্যাকচারিং। তবে বিনিয়োগকারীদের অনীহার কারণে প্রতিষ্ঠানটি বেশিদিন চলেনি। এরপরই তিনি সাধারণ গবেষকের জীবনযাপন শুরু করেন। তৈরি করেন বিশেষ ধরনের এসি ইন্ডাকশন মোটর, নতুন ধরনের এক্স-রে। তার পেটেন্টের তালিকায় যোগ হয় ইলেকট্রিক্যাল কনডেনসার, ট্রান্সফরমার, সার্কিট কন্ট্রোলার, মেথড অব সিগন্যালিং এবং গতিনির্দেশক যন্ত্র ছাড়াও আরও অনেক কিছু। তিনি ১৯৪৩ সালের ৭ জানুয়ারি মারা যান। মারা যাওয়ার পর তার অসমাপ্ত কাজগুলো করতে অনেক সমস্যায় পড়তে হয় বিজ্ঞানীদের। তার সম্মানার্থে ১৯৬০ সালে তড়িৎ ফ্লাক্স এর এস এই একক টেসলা করা হয়।

১৯৯৮- মার্কিন গণিতবিদ ও কম্পিউটার বিজ্ঞানী রিচার্ড হ্যামিং।

একই ধরনের আরও সংবাদ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.