অধিকার ও সত্যের পক্ষে

সারা দেশে বই উৎসবের মহৌৎসব

বছরের প্রথম দিনে সারা দেশের শিশুরা মেতেছিল এক অন্য রকম উৎসবে। নতুন বইয়ের গন্ধে তারা মাতোয়ারা হয়ে উঠেছিল। ২০১০ সাল থেকেই ধারাবাহিকভাবে চলে আসছে বিনা মূল্যে বই বিতরণের এই উৎসব। বছরের প্রথম দিনে স্কুলগামী শিশুদের জন্য এর চেয়ে বড় উপহার, বড় আনন্দের বিষয় আর কী হতে পারে! প্রথম শ্রেণি থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত সব শিশু-কিশোরই শরিক ছিল এই উৎসবে।

 বছরের শুরুর দিনে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দেওয়ার উদ্যোগ অত্যন্ত প্রশংসনীয় একটি কাজ। শৈশবে নতুন বই হাতে পাওয়ার আনন্দ-অভিজ্ঞতা আমাদের সবারই আছে। কিন্তু সে বই হাতে আসতে প্রায়ই অনেক সময় লেগে যেত। কখনো স্কুলে ক্লাস শুরু হয়ে যেত। অপেক্ষার সেই সময়গুলো কতটা অস্বস্তিতে কাটাতে হতো, তা-ও আমাদের অজানা নয়। আজকের শিক্ষার্থীরা সৌভাগ্যবান, বইয়ের জন্য তাদের অপেক্ষার প্রহর কাটাতে হয় না। কিন্তু শৈশবে শিক্ষার শক্ত ভিত তৈরির জন্য শুধু নতুন বই হাতে পাওয়াই যথেষ্ট নয়।

শিশুশিক্ষা যত বেশি আনন্দময় হবে, তত বেশি সাফল্য ধরা দেবে—সারা দুনিয়ায় এটিই স্বীকৃত। শৈশবেই শিক্ষা হয়ে ওঠে ভীতিকর এক প্রস্তুতি। এ থেকে শিশুদের  জন্য আনন্দময় শৈশব নিশ্চিত করতে হবে। প্রতিবছর জানুয়ারি মাসের ১ তারিখে বই উৎসব করা নিঃসন্দেহে একটি প্রশংসনীয় উদ্যোগ।

একই ধরনের আরও সংবাদ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.