৮ মাসে ধর্ষনের স্বীকার ৫৭৪ শিশু

এ ছাড়া ৮৭ জন শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে।জাতীয় কন্যাশিশু অ্যাডভোকেসি ফোরামের হিসাব অনুযায়ী প্রতিমাসে ৭১ জন কন্যাশিশু ধর্ষণের শিকার হয়। প্রতিদিনের হিসাবে সে সংখ্যা ২ জন।জাতীয় কন্যাশিশু অ্যাডভোকেসি ফোরাম আয়োজিত এক পর্যবেক্ষণ প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে আসে।

শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর প্রেসক্লাবে সংগঠনটির সম্পাদক নাসিমা আক্তার জলি এ পর্যবেক্ষণ প্রতিবেদন সাংবাদিকদের সামনে তুলে ধরেন। অনুষ্ঠানে কন্যাশিশু অ্যাডভোকেসি ফোরামের সভাপতি ড. বদিউল আলম মজুমদার উপস্থিত ছিলেন।চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে আগষ্ট পর্যন্ত ২৪টি  জাতীয়, স্থানীয় ও অনলাইন দৈনিক পত্রিকা থেকে এসব তথ্য সংগ্রহ করা হয়।পর্যবেক্ষণ প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রেমের অভিনয় ও বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ৪৯ শিশুকে ধর্ষণ করা হয়েছে।

ধর্ষণের পর ২০ জনকে হত্যা করা হয়েছে।গত ৮ মাসে ১৮৬ জন শিশুকে হত্যা করা হয়েছে। আত্মহত্যা করেছে ১৮১ কন্যাশিশু।   বিদায়ী ৮ মাসে ২৩০১ জন শিশুর বাল্যবিয়ে সংঘটিত হয়েছে। যা গড়ে প্রতি মাসে দাঁড়ায় ২৮৮জন।
এ ৮ মাসে ৫৮৯ বাল্যবিয়ে প্রতিরোধ করা সম্ভব হয়।

৮ মাসে দেশ থেকে পাচার হয়েছে ১৩৬ কন্যাশিশু। যাদের মধ্যে ৭৪ জনকে অপহরণ করা হয়েছে৷ এছাড়া যৌতুকের কারণে নির্যাতনের শিকার হয়েছে ১৩ জন। যৌতুক দিতে না পারায় ৫ কন্যাশিশু আত্মহত্যা করে।

গত ৮ মাসে ১৫টি শিশু গৃহশ্রমিককে নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ২ জন শিশুশ্রমিক হত্যার শিকার হয়েছে, আরও এক শিশু আত্মহত্যা করছে।