৫ থেকে ১২ বয়সীদের করোনা টীকা জুনে

অনলাইন ডেস্ক।।

আগামী জুন মাস থেকে ৫ থেকে ১২ বছরের শিশুদের টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা করবে সরকার। স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, আমরা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদন পেয়েছি। দুই কোটি টিকার চাহিদা আমরা পাঠিয়েছি। ৩০ লাখ টিকা ইতোমধ্যে এসেছে।

তিনি বলেন, ‘আমি মা-বাবাদের বলবো ৫ থেকে ১২ বছরের শিশুদের জন্ম নিবন্ধন করে নেবেন। জন্মনিবন্ধন দিয়ে টিকার রেজিস্ট্রেশন করে ফেলবেন। যাতে টিকা নিতে কোনো সমস্যা না হয়।’

শুক্রবার (২৯ এপ্রিল) সন্ধ্যায় মানিকগঞ্জ সদর উপজেলা গড়পাড়া শুভ্র সেন্টারে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর ব্যক্তিগত উদ্যোগে ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, আগামী জুনের মধ্যে ৫ থেকে ১২ বছরের শিশুদের টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা আমরা নিয়েছি। এই টিকার আওতায় প্রায় দুই কোটি শিশু আসবে। এই টিকা শিশুদের জন্য বিশেষভাবে (ফাইজার) তৈরি করা হয়েছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেন, বাংলাদেশ বিশ্বের এমন একটি দেশ যেখানে প্রায় ৭৫ ভাগ জনগণকে টিকা দেওয়া হয়েছে। টার্গেটের নির্দিষ্ট জনগণের ৯৫ ভাগ লোককে টিকা দেওয়া হয়েছে। আমরা ইতোমধ্যে প্রায় ২৫ কোটি ডোজ টিকা দিয়ে ফেলেছি। আমরা এখন বুস্টার ডোজ দিচ্ছি। যারা বুস্টার ডোজ নেননি তারা দ্রুত দিয়ে নেবেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, টিকা দেওয়ার সফলতার জন্য প্রধানমন্ত্রীকে ভ্যাকসিন হিরো ঘোষণা করার পর এবার ভ্যাকসিন চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা হয়েছে। করোনার চর্তুথ ওয়েব প্রসঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আমাদের দেশে অধিকাংশ মানুষ টিকা নিয়েছেন, তাই চতুর্থ ওয়েব আমাদের দেশে সেইভাবে আসবে না।

এসময় উপস্থিত ছিলেন- জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ আব্দুল লতিফ, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ গোলাম আজাদ খান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মহীউদ্দীন, সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সালাম, পৌর মেয়র রমজান আলী, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইসরাফিল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আফসার উদ্দিন সরকারসহ দলীয় নেতাকর্মীরা।