৩৮ হাজার শিক্ষক নিয়োগের ভুয়া সুপারিশপত্র ফেসবুকে

পুলিশ ভেরিফিকেশন চলমান রেখেই ৩৮ হাজার শিক্ষক নিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। ভেরিফিকেশনের পাশাপাশি এসব শিক্ষককে নিয়োগের জন্য সুপারিশ দেওয়া হবে বলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে।

এটি কার্যকর করতে ইতোমধ্যে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষকে (এনটিআরসিএ)  চিঠি দিয়েছে মন্ত্রণালয়। তারই ভিত্তিতে শিগগিরই সুপারিশপত্র দেওয়া হবে বলে এনটিআরসিএ সূত্রে জানা গেছে। তবে বুধবার দিবাগত রাত থেকে বিভিন্ন মাধ্যমে সুপারিশপত্র দেখা যাচ্ছে। সেটিকে ভুয়া সুপারিশপত্র বলে জানিয়েছেন এনটিআরসি সদস্য (পরীক্ষা মূল্যায়ন ও প্রত্যয়ন) এবিএম শওকত ইকবাল শাহীন (যুগ্ম সচিব)।

বৃহস্পতিবার (২০ জানুয়ারি) সকালে তিনি বলেন, আমরা জানতে পেরেছি  বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভুয়া সুপারিশপত্র দেওয়া হচ্ছে। যেটি সম্পর্কে আমরা অবগত নই।  আমরা তাদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছি। আগের সুপারিশপত্রকে কপি করে তারা সেটি প্রকাশ করছে।  সেখানে আমাদের কারো স্বাক্ষর নেই, তারিখ উল্লেখ নেই। এটিতে কোন প্রার্থীকে বিভ্রান্ত না হওয়ার অনুরোধ করছি।

গতকাল মধ্যরাত থেকে এমন একটি সুপারিশপত্র বিভিন্ন ওয়েবসাইটে দেখা যাচ্ছে। একজন প্রার্থীর হুবহু রোল, নাম ও প্রতিষ্ঠান দেখা যাচ্ছে। এমনটা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটি সম্পূর্ণ ভুয়া। এখানে কারো স্বাক্ষর নেই।  এটি যাতে প্রচার না হয় এবং কেউ যাতে এটাতে বিভ্রান্ত না হয় সে অনুরোধ করছি।

এ সুপারিশপত্রের নিচে আপনার নাম দেখা গেছে এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমার নাম আছে। কিন্তু কোন স্বাক্ষর নেই। এটা কারা করছে আমরা তাদের বের করার চেষ্টা করছি। এটি জালিয়াতি। ’

আপনারা সুপারিশপত্র কবে নাগাদ দিতে পারেন-এমনটা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা চেষ্টা করছি খুব শিগগিরই দিতে। এটি নিয়ে এখনো কাজ চলছে।