৩০ টাকার বিনিময়ে শিক্ষকের অ্যাসাইনমেন্ট মিলছে দোকানে

প্রকাশিত: ২:৫১ অপরাহ্ণ, শনি, ৭ নভেম্বর ২০

নিজস্ব প্রতিনিধি।।

সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জ উপজেলায় হাতেম হাসিল ভাতহাড়িয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে  সহকারী প্রধান শিক্ষক মো. শামীম হোসেন তালুকদার অ্যাসাইনমেন্ট দোকানে বিক্রি করছেন বলে অনেকে অভিযোগ করেছেন।

জানা গেছে, ৩০ টাকার বিনিময়ে বাজারের কম্পিউটারের দোকানে এসব অ্যাসাইনমেন্ট পাওয়া যাচ্ছে। সেখান থেকে শিক্ষার্থীরা অ্যাসাইনমেন্ট সংগ্রহ করতে বাধ্য হচ্ছেন বলে অভিযোগ ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের। সরেজমিনে ভাতহাড়িয়া বাজারের একটি দোকানে গিয়েও এর সত্যতা পেয়েছেন সাংবাদিকরা। দোকানের সামনে শত শত শিক্ষার্থীকে ভিড় করতে দেখা গেছে।

দোকান থেকে অ্যাসাইনমেন্ট সংগ্রহ করার কারণ জানতে চাইলে এক শিক্ষার্থী নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ‘আমরা শামীম স্যারের নির্দেশে অ্যাসাইনমেন্ট সংগ্রহ করছি। একেকটির দাম ৩০ টাকা।’

তবে শুরুতে এ অভিযোগ অস্বীকার করেন শিক্ষক মো. শামীম হোসেন তালুকদার।

এ বিষয়ে স্কুলের প্রধান শিক্ষক ইসমাইল হোসেন মল্লিক বলেন, ‘৫ নভেম্বর ছিল আমার শেষ কর্মদিবস। ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হিসাবে শামীম হোসেন অ্যাসাইমেন্টের বিষয়টা দেখছেন। তিনিই সব বলতে পারবেন।’

রায়গঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. তারিকুল ইসলাম এ ব্যাপারে বলেন, ‘নির্দেশনা দিয়েছি নিজ প্রতিষ্ঠান থেকে অ্যাসাইনমেন্ট বিতরণ করতে। প্রয়োজনে প্রতিষ্ঠান খরচ বহন করবে। তিনি নির্দেশনা অমান্য করায় সরকারি বিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।’

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.