২য় পদ্মা সেতু করে দিতে চান মুসা বিন শমসের

প্রকাশিত: ৩:৪২ অপরাহ্ণ, বুধ, ১৩ অক্টোবর ২১

অনলাইন ডেস্ক।।

এক প্রতারক গ্রেপ্তার হওয়ার জেরে গোয়েন্দা পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদের মুখে পড়েছেন বিতর্কিত ব্যবসায়ী মুসা বিন শমসের।

মুসা বিন শমসের স্ত্রী, ছেলেসহ গতকাল  মঙ্গলবার বেলা সাড়ে তিনটার দিকে রাজধানীর মিন্টো রোডে ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা (ডিবি) কার্যালয়ে গেছেন।

ভুয়া অতিরিক্ত সচিব আবদুল কাদেরের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করতেই মুসা বিন শমসেরকে ডিবি কার্যালয়ে ডাকা হয়েছে বলে কর্মকর্তারা জানিয়েছিলেন। সোমবার তাঁকে ডাকা হলেও তিনি এক দিন সময় নেন।

গত বৃহস্পতিবার রাজধানীর কয়েকটি জায়গায় অভিযান চালিয়ে অতিরিক্ত সচিব পরিচয় দিয়ে প্রতারণা করে আসা আবদুল কাদেরসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করে গোয়েন্দা পুলিশ। গ্রেপ্তার অপর ব্যক্তিদের মধ্যে আবদুল কাদেরের প্রতিষ্ঠান সততা প্রপার্টিজের চেয়ারম্যান ও তাঁর দ্বিতীয় স্ত্রী শারমিন চৌধুরীও রয়েছেন।

ডিবি জানায়, এসএসসি পাস না করেই অতিরিক্ত সচিব পরিচয় দিয়ে প্রতারণা করে ঢাকায় একাধিক ফ্ল্যাটের মালিক হয়েছেন আবদুল কাদের। ঢাকার বাইরে গাজীপুরে ৯ তলা বাড়ি ও ৮ বিঘা জমির ওপর বাগানবাড়ি রয়েছে তাঁর। এ ছাড়া আবদুল কাদেরের পাঁচটি ব্যাংক হিসাবে মোটা অঙ্কের টাকা থাকারও তথ্য পেয়েছে ডিবি। গোয়েন্দা কর্মকর্তারা বলছেন, দেড় যুগ ধরে প্রতারণা করে অঢেল সম্পদের মালিক হয়েছেন আবদুল কাদের।

গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের ভাষ্যমতে, আবদুল কাদের আলোচিত মুসা বিন শমসের এর আইন উপদেষ্টা । কেন দশম শ্রেণি পাস কাদেরকে এ পদে নিয়োগ দিয়েছিলেন এবং তাঁর সঙ্গে অন্য কোনো সম্পর্ক আছে কি না, সে বিষয়ে মুসা বিন শমসেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে জানিয়েছিলেন ডিবি কর্মকর্তারা। মুসা বিন শমসের পুলিশকে জানিয়েছেন সুইস ব্যাংকে আটকে পড়া ৮২ বিলিয়ন ডলার উদ্ধার করতে পারলে ২য় পদ্মা সেতু,পুলিশের জন্য ৫০০ কোটি ও দুদক ভবন করে দেওয়ার কথা বলেন।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.