স্কুলে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা ৫-১১ ফেব্রুয়ারি

শিক্ষাবার্তা ডেস্কঃ দেশের সব সরকারি-বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পড়ুয়া খুদে ডাক্তারদের মাধ্যমে ‘শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা’ কার্যক্রম শুরু হচ্ছে ৫ তেকেব ১১ ফেব্রুয়ারি। এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীর ওজন, উচ্চতা ও দৃষ্টিশক্তি পরীক্ষা করতে নির্দেশনা দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর (মাউশি)।

মাউশির বিজ্ঞপ্তি থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তি বলা হয়, স্বাস্থ্য অধিদফতরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার অধীন ফাইলেরিয়াসিস নির্মূল, কৃমি নিয়ন্ত্রণ ও খুদে ডাক্তার কার্যক্রম পরিচালনা করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। ৫ থেকে ১১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত মাধ্যমিক পর্যায়ের সব বিদ্যালয়ে খুদে ডাক্তারের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হবে।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে খুদে ডাক্তার দল গঠন এবং তাদের মাধ্যমে স্বাস্থ্য পরীক্ষা একটি অভিনব কার্যক্রম, এতে শিক্ষার্থীদের অনুপ্রাণিত হওয়ার, দলগতভাবে কাজ করার, এমনকি সুশৃঙ্খলভাবে জীবন গড়ার সুযোগ রয়েছে।

আরো বলা হয়, ৫ থেকে ১১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সব মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে খুদে ডাক্তারদের মাধ্যমে এ কার্যক্রম পরিচালনার জন্য সহকারী বা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ও প্রধান শিক্ষকদের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এসব নির্দেশনার মধ্যে রয়েছে- উল্লেখিত সময়ে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা কার্যক্রম পালনের ব্যবস্থা করা, সহকারী উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার নিজ নিজ ক্লাস্টারের বিদ্যালয়ে খুদে ডাক্তাদের মাধ্যমে সুষ্ঠুভাবে নিবিড়ভাবে তত্ত্বাবধান ও পরিবীক্ষণ, শিক্ষকদের উপস্থিতি নিশ্চিত করা ও সহকারী শিক্ষকদের এ কর্মসূচিতে যুক্ত করা, খুদে ডাক্তারদের মাধ্যমে নির্ধারিত শ্রেণির সব শিক্ষার্থীর ওজন, উচ্চতা ও দৃষ্টিশক্তি পরীক্ষাসহ আনুষঙ্গিক তথ্য সংগ্রহ করে তা স্বাস্থ্য পরীক্ষার ফরমে লিপিবদ্ধ করতে বলা হয়েছে।

স্বাস্থ্য পরীক্ষার সময় অস্বাভাবিক শারীরিক বৃদ্ধিসহ দৃষ্টিশক্তিতে ত্রুটি কিংবা স্বাস্থ্য পরীক্ষার ফরমে উল্লেখিত বিষয়ের তথ্য গাইড শিক্ষকের নজরে আনা ও এ রিপোর্ট স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকে সরবরাহ এবং তার সঙ্গে সমন্বয় করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

শিক্ষাবার্তা ডট কম/এএইচএম/০১/২৩/২৩