স্কুলে ছেলের বেতনের টাকা কম দেওয়ায় দিনমুজুর পিতা লাঞ্চিত

ঢাকাঃ দিনমজুর ওমর ফারুক। ছেলে ফাইজুল ইসলামের স্কুলের মাসিক বেতন ও এসএসসির ফরম পুরনের টাকা এক সাথে পরিশোধে ব্যর্থ হওয়ায় তাকে লাঞ্চিতসহ সন্তানের এসএসসি পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২১ নভেম্বর) দুপুরে ওমর ফারুক নামে ওই শিক্ষার্থীর পিতা ন্যায় বিচার চেয়ে সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকতার কাছে লিখিত অভিযোগ দেন।

জানা যায়, উপজেলার বোতলাগাড়ি ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের ডাঙ্গাপাড়ার বাসিন্দা ওমর ফারুক। পেশায় দিন মজুর। ছেলেকে সুশিক্ষিত করতে প্রথমে বাড়ির পাশে বেসরকারি সংস্থা ব্র্যাক স্কুলে পড়ান। পরে ষষ্ঠ শ্রেণীতে ভর্তি করান শহরের ১ ওয়ার্ডের গোলাহাট এলাকার মতিয়ার রহমান বিদ্যাপীঠে। সেখানে স্কুলের নিয়মিত বেতন পরিশোধের মাধ্যমে টানা ৫ বছর ধরে পড়া লেখা চালিয়ে আসছেন।

তবে কাজকর্ম না থাকায় সন্তানের দশম শ্রেণীর নিয়মিত মাসিক বেতন পরিশোধে ব্যর্থ হন। টেষ্ট ৩য় পরীক্ষা তার খাতা কেড়ে নিয়ে বের করে দেয়া হয়। অভিভাবক বিষয়টি জানার পর স্কুলে গিয়ে শিক্ষকদের কাছে আকুতি মিনতি করেন। কোন লাভ হয় না। স্কুলের হিসাব অনুযায়ী পাওনা ১০ হাজার ১ শত টাকার বিপরীতে ৮ হাজার টাকা নগদ দিলেও টেষ্ট পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ দেন না কর্তৃপক্ষ। এতে বোর্ডের বিধি অনুযায়ী আসন্ন এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণে বঞ্চিত হন ফাইজুল।

ফাইজুল জানান, বাবা বিভিন্ন বাড়িতে কাজ করে সংসারসহ লেখাপড়ার খরচ বহন করেন। অনেক স্বপ্ন নিয়ে তিন মাইল পায়ে হেটে স্কুলে যাই। তবে গরীব হওয়ায় সেই স্বপ্ন ভেঙ্গে গেল। এ কথা বলে হাউমাউ করে কাঁদেন ফাইজুল।

ওমর ফারুক বলেন, বেতনের জন্য পরীক্ষার কক্ষ থেকে বের করে দেয়ার নিয়ম কোথাও নেই। বর্তমান সরকার গরীবের জন্য এত সুবিধা দিয়েছেন। আর এই স্কুলের পরিচালক টাকার জন্য সন্তানের ভবিষ্যত ধ্বংস করল। তাই তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফয়সাল রায়হানের কাছে বিচার দাবী করেন।

জানতে চাইলে স্কুলটির প্রধান শিক্ষক মো: হেলাল হোসেন বলেন, টেষ্ট পরীক্ষা না দিলে ফরম পুরণ করতে পারবেনা। তাই করার কিছুই নাই।

সৈয়দপুর মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো: সাইফুল ইসলাম জানান, বিষয়টি জানতাম না। তবে যদি পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ থাকে অবশ্যই ব্যবস্থা করা হবে।

সৈয়দপুর নির্বাহী কর্মকতা ফয়সাল রায়হান বলেন, বেতন পরিশোধ না থাকায় পরীক্ষা দিতে না দেওয়া ও ফরম পুরণের সময় অভিভাবককে অপমান করা দু:খ জনক ঘটনা। তদন্ত সাপেক্ষে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শিক্ষাবার্তা ডট কম/এএইচএম/২১/১১/২০২৩ 

দেশ বিদেশের শিক্ষা, পড়ালেখা, ক্যারিয়ার সম্পর্কিত সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম, ছবি, ভিডিও প্রতিবেদন সবার আগে দেখতে চোখ রাখুন শিক্ষাবার্তায়