সিলেটের বিশিষ্টজনেরা চান ভিসির অপসারণ

অনলাইন ডেস্ক : শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে অনশনরত শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নিয়ে দ্রুত ভিসির অপসারণে পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন সিলেটের বিশিষ্ট নাগরিকরা।
সোমবার (২৫ জানুয়ারি) বিকেলে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সংহতি সমাবেশে এ দাবি জানান সিলেটের বিশিষ্ট নাগরিকরা।
এতে সভাপতিত্ব করেন সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এমাদ উল্লাহ শহীদুল ইসলাম।

বাসদ জেলা সদস্য প্রণব জ্যোতি পালের সঞ্চালনায় সংহতি সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ গণতন্ত্রী পার্টির কেন্দ্রীয় সভাপতি ব্যারিস্টার মো. আরশ আলী, সিপিবির সাবেক সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট বেদানন্দ ভট্টাচার্য, সাম্যবাদী দলের জেলা সম্পাদক ধীরেণ সিংহ, সিপিবি জেলা সভাপতি সৈয়দ ফরহাদ হোসেন, বাসদ (মার্কসবাদী) আহ্বায়ক উজ্জ্বল রায়, বাসদ সমন্বয়ক আবু জাফর, গণতন্ত্রী পার্টির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গুলজার আহমদ, ওয়ার্কস পার্টি (মার্কসবাদী) সভাপতি সিরাজ আহমেদ,  সাম্যবাদী আন্দোলনের সমন্বয়ক সুশান্ত সিনহা সুমন,  ঐক্য ন্যাপ জেলা সাধারণ সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস বাবুল, উদীচী সভাপতি এনায়েত হাসান মানিক।

এছাড়া উপস্থিত ছিলেন, রবীন্দ্র সংগীত শিল্পী অনিমেষ বিজয় চৌধুরী রাজু, খেলাঘর জেলা সাধারণ সম্পাদক তপন চৌধুরী, জজ কোর্টের আইনজীবী রনেন সরকার রনি, যুব ইউনিয়ন জেলা সাধারণ সম্পাদক নিরঞ্জন দাস খোকন, জাতীয় যুব ঐক্য জেলা সাধারণ সম্পাদক আজিজুর রহমান খোকন, চারণ সংগঠক রুবাইয়াত আহমদ, ছাত্র ইউনিয়ন সভাপতি দীপংকর সরকার, ছাত্র ফ্রন্ট সভাপতি সঞ্জয় শর্মা, ছাত্র কাউন্সিল কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ফাহিম আহমদ চৌধুরী।

সংহতি সমাবেশে নেতারা শাবির শিক্ষার্থীদের দাবির প্রতি একাত্মা প্রকাশ করে বলেন,  দীর্ঘ দিন থেকে শিক্ষার্থীরা ন্যায্য দাবিতে আন্দোলন করে আসলেও সরকার সংকট সমাধানের জন্য কার্যকর কোন ভূমিকা পালন করেনি।

তাই ভিসির অপসারণ আন্দোলনে সারাদেশের মানুষ সংহতি জানাচ্ছে। কিন্তু ভিসি নির্লজ্জভাবে পদ আকড়ে আছেন।

বক্তারা বলেন, শিক্ষার্থীদের গণতান্ত্রিক ভিসি বিরোধী আন্দোলন বানচাল করার অপচেষ্টা থেকে বিরত থাকার জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহবান জানান।

শাবিতে শিক্ষার্থীদের সাথে কোন অনাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটলে এর দায় সরকার ও রাষ্ট্রকে নিতে হবে বলে নেতৃবৃন্দ হুশিয়ারী উচ্চারণ করেন।

সংহতি সমাবেশে সংহতি জানিয়ে উপস্থিত ছিলেন, ওয়ার্কস পার্টি (মার্কসবাদী) জেলা সাধারণ সম্পাদক ডা. হরিদন দাস, বাংলাদেশ জাসদ জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক মো. বাবুল হোসেন, বাসদ জেলা সদস্য জুবায়ের আহমেদ চৌধুরী সুমন, সিপিবি জেলা সদস্য তুহিন কান্তি, বাসদ (মার্কসবাদী) জেলা সদস্য রেজাউর রহমান রানা, বাংলাদেশ শ্রমিক কর্মচারি ফেডারেশন সভাপতি মোখলেছুর রহমান, চা শ্রমিক আন্দোলনের সভাপতি হৃদেশ মুদি, ব্যাটারি রিকশা সংগ্রাম পরিষদের সংগঠক মঞ্জু আহমদ, চারণ জেলা আহবায়ক নাজিকুল ইসলাম রানা, গণসংগীত শিল্পী রতন দেব, উদীচী জেলা দপ্তর সম্পাদক সন্দীপ দেব,নারী মুক্তি কেন্দ্র জেলা সংগঠক ইশরাত রাহী রিশতা,  সংস্কৃতি কর্মী নাহিদ পারভেজ বাবু প্রমুখ।