সারাদেশে ডিপ্লোমা প্রকৌশলীদের আন্দোলনের হুশিয়ারি

অনলাইন ডেস্ক।।

প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের পেশাগত সমস্যা সমাধানসহ চার দফা দাবি দ্রুত বাস্তবায়ন করা না হলে সারাদেশে কঠোর আন্দোলনের হুশিয়ারি দিয়েছেন বাংলাদেশ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং ছাত্র শিক্ষক পেশাজীবী সংগ্রাম পরিষদের নেতারা।

রোববার রাজধানীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আয়োজিত ঢাকা সমাবেশ ও প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি প্রদান অনুষ্ঠানে এ হুশিয়ারি দেন তারা।

এ সময় বক্তারা বলেন, দেশের উন্নয়নে ৪০ শতাংশ ভূমিকা ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়াররা অবদান রাখলেও আমাদের নানাভাবে বঞ্চিত করা হচ্ছে। কারিগরি শিক্ষার নানা পরিবর্তন এনে এ শিক্ষার গুরুত্ব কমিয়ে ফেলার চেষ্টা চলছে। কারিগরি শিক্ষার সঙ্গে সম্পৃক্ত আমলাদের কেউ কেউ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের ন্যায্য দাবি থেকে বঞ্চিত করছেন। প্রধানমন্ত্রী আমাদের দাবি বাস্তবায়নে প্রতিশ্রুতি দিলেও আমলারা তা এখনো বাস্তবায়ন করেননি।

তারা বলেন, অন্যান্য কারিগরি পেশাজীবীদের ন্যায় চাকরির প্রাথমিক নিযুক্তিতে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের স্পেশাল ইনক্রিমেন্ট প্রদানে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়নে উন্নয়ন উৎপাদন ঘনিষ্ঠ ডিপ্লোমা প্রকৌশলীদের আর কত বছর অপেক্ষা করতে হবে? দাবি বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে চার থেকে পাঁচটি স্মারকপত্রের মাধ্যমে অর্থ মন্ত্রণালয়, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়কে নির্দেশনা দেওয়ার পরও দীর্ঘ ১০ বছরেও বাস্তবায়ন না হওয়া দুর্ভাগ্যজনক।

অভিযোগ করে তারা বলেন, উল্টো কারিগরি শিক্ষায় একের পর এক ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার বিদ্বেষী কালাকানুন প্রণয়ন করা হচ্ছে। যার সর্বশেষ সংযোজন নির্মাণ কাজে জনগণকে জিম্মি করে ও ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের অধিকারহরণে দুই থেকে তিনটি জনস্বার্থবিরোধী ধারা সম্বলিত বাংলাদেশ ন্যাশনাল বিল্ডিং কোর্ডের (বিএনবিসি) গেজেট প্রকাশ। প্রধানমন্ত্রীর সুস্পষ্ট নির্দেশনা ও আন্তঃমন্ত্রণালয় কমিটির সুপারিশ থাকার পরেও বিএনবিসিতে জনস্বার্থবিরোধী ধারা উপধারা সংযোজন করা হয়েছে। এভাবে দেশের ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার ও ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষাব্যবস্থা ধ্বংসের পাঁয়তারা চলছে।

তাদের দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে- চার বছর মেয়াদি ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সকে তিন বছরে রূপান্তরের উদ্যোগ বাতিলকরণ, বিএনবিসি ২০২০ ও ঢাকা ইমারত নির্মাণ বিধিমালা-২০০৮ এর জনস্বার্থবিরোধী সংজ্ঞা ও ধারা-উপধারা সংশোধন করে গেজেট প্রকাশ, ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের নিয়মিত সুবিধা প্রদানে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন ও কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষক স্বল্পতা, শ্রেণিকক্ষ, ল্যাব, ওয়ার্কসব সংকটের সমাধানসহ শিক্ষকদের দ্বিতীয় শিফটের সম্মানী ভাতা প্রদান, স্টেপ প্রকল্পের শিক্ষকদের নিয়মিতকরণ।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন- আইডিইবির সভাপতি এ কে এম এ হামিদ, সাধারণ সম্পাদক মো. শামসুর রহমান, কেন্দ্রীয় সংগ্রাম পরিষদের সদস্য সচিব মির্জা এটিএম গোলাম মোস্তফা, বঙ্গবন্ধু ডিপ্লোমা প্রকৌশলী পরিষদের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. খবির হোসেন, সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা এ কে নাম আব্দুল মোতালেব, মো. গিয়াস উদ্দিন, মো. রেহান মিয়া, আব্দুল কুদ্দুছ প্রমুখ।

সমাবেশ থেকে কেন্দ্রীয় সংগ্রাম পরিষদের আহ্বায়ক মো. ফজলুর রহমান খান ও সদস্য সচিব মির্জা এটিএম গোলাম মোস্তফার নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধিদল প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে দাবি বাস্তবায়নে স্মারকলিপি হস্তান্তর করেন। এসময় প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে স্মারকলিপি গ্রহণ করে প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব।