সাপাহারে মেয়ে থেকে ছেলেতে রুপান্তরিত হওয়ার গুঞ্জন

প্রকাশিত: ১:১১ অপরাহ্ণ, মঙ্গল, ৪ মে ২১

গোলাপ খন্দকার সাপাহার (নওগাঁ) প্রতিনিধি।।

নওগাঁর সাপাহার উপজেলার পাতাড়ী ইউনিয়নের শিমুলডাঙ্গা রামাশ্রম গ্রামে এক রকম চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটেছে যা এক মেয়ে হঠাৎ মেয়ে থেকে ছেলেতে রুপান্তরিত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

সোমবার, রামাশ্রম গ্রামে ওই মেযে থেকে ছেলে হওয়া ৫ম শ্রেণির ছাত্রী টুম্পা(১২) নারী থেকে পূর্ণাঙ্গ পুরুষে রূপান্তরিত হয়ে গেছে এমন গুঞ্জন ওই এলাকায় ছড়িয়ে পড়েছে এবং সে মেয়ে নিজে ও তার পরিবারের সদস্য, মা,কাকি ও এলাকাবাসী সত্য ঘটনা বলে স্বীকার করেন।

উপজেলার রামাশ্রম গ্রামে এ ঘটনাটি প্রচার হওয়ার পর থেকে গত কাল থেকে বাড়িতে কৌতূহলী জনতা ভিড় করছেন। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, নওগাঁ জেলার সাপাহার উপজেলার পাতাড়ী ইউনিয়নের রামাশ্রম গ্রামের কর্মকার কৃষক রাজকুমার ও পুষ্প রানী দম্পতির ওই মেয়ে ছেলেতে রুপ নিয়েছে।

মেয়ের মা পুষ্প রানী জানান,আমি দীর্ঘ দিন ধরে এই বিষয়ে জানি তবে লজ্জায় মুখ খুলতে পারিনি তবে এটা বেশি দিন সমাজে ঢেকে রাখা যাবে না কারন সে বিএসডিও ও বিডিও এবং এ্যাকশন এইড বাংলাদেশ নামক সংস্থার স্পন্সর শিশু এবং তার পাঠীদের সাথে খেলা ধুলা ,চলা ফেরা করেন তাই যেনর কোন বিভ্যান্তিতে না পড়ে তাই প্রকাশ করা। আর এখন তার কথা বার্তার ধরন সব ছেলের মতো হয়ে যাচ্ছে তাই আমি নিজেই প্রকাশ করলাম। সে এখন ছেলে মানুষে রুপ নিয়েছে তার লিঙ্গ পরিবর্তন হয়েছে মেয়ে লিঙ্গ থেকে ছেলে লিঙ্গতে পরিনত হয়েছে আমি নিজে চোখে দেখেছি।

প্রতিবেশী আব্দুল বারী জানান, আমি তার প্রতিবেশি এরকম গুঞ্জনের কথা শুনে আমি নিজে আমার বাড়িতে ডেকে তাকে জিজ্ঞাসা করলে সে আমার কাছে এই মেয়ে থেকে ছেলে হওয়ার ঘটনা স্বীকার করেন।

তার আরেক প্রতিবেশী মোকসেত জানান, কয়েকদিন থেকে এরকম কথা শোনা যাচ্ছে টুম্পা মেয়ে থেকে ছেলেতে রুপ নিয়েছে তাই আমি নিজে তার বাড়িতে গিয়ে তার মা ও মেয়ের ক্ছা থেকে শুনলাম সে এখন ছেলে হয়েছে তার লিঙ্গও পরিবর্তন হয়েছে।

তার পড়ার সহপাঠী নাইমা জানান, আমরা এক সাথে খেলাধুলা করি হঠাৎ সে এখন মেয়ে থেকে ছেলে মানুষে পরিণত হয়েছে তার চলাফেরা এখন ছেলেদের মতো।

টুম্পার সাথে কথা হলে সে জানান, আমি অনেক আগেই বুঝেছি আমি ছেলে মানুষ হয়েছি আমার লিঙ্গের পরিবর্তন হয়েছে আমি আমার মা কে ও পাড়া প্রতিবেশিকে বিষয়টি জানিয়েছি। প্রথমে আমার লজ্জা করতেছিল তাই প্রকাশ করছিলাম না।

পরিবারের সদস্যরা জানান, গত কয়েক দিন থেকে হঠাৎ করে টুম্পার কণ্ঠস্বর বদলে যেতে শুরু করে। কণ্ঠস্বর, চলাফেরা ও আচার-আচরণ ছেলেদের মত হতে থাকে ।তার শারীরিক গঠন পরিবর্তন হয়ে ছেলেদের মতো হয়ে যায়।

ওই এলাকার এলাকাবাসীর দাবী প্রশাসনের সহযোগিতায় ডাক্তারের পরামর্শে কি করলে ভালো হয় সেটা যেন প্রশাসন করেন।মনে করছেনে

বিষয়টি নিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল্যাহ আল মামুনের সাথে কথা হলে তিনি জানান, ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেলে উপজেলা প্রশাসন হতে প্রযোজ্য ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

সাপাহার উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ মুহা: রুহুল আমিন বলেন, লিঙ্গ পরিবর্তন হতে পারে তবে সেটা অনেক সময়ের ব্যাপার। যদি ঘটনা সত্য হয় তাহলে তা উন্নত পরীক্ষা নিরীক্ষার মাধ্যমে নিশ্চিত করা যেতে পারে।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.