শিক্ষার্থীদের ভয়ভীতি দেখিয়ে বেতন আদায়, বিক্ষোভ

প্রকাশিত: ৮:০৩ অপরাহ্ণ, মঙ্গল, ১০ নভেম্বর ২০

নিউজ ডেস্ক।।

করোনাভাইরাস মহামারীর সময়ে বন্ধ থাকা সত্ত্বেও শিক্ষার্থীদেরকে ভয়ভীতি দেখিয়ে জোরপূর্বক ৯ মাসের বেতন ভাতা ও বিভিন্ন ফি আদায়ের অভিযোগ উঠেছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলার মনিয়ন্দ ইউনিয়নের তুলাই শিমুল উচ্চ বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। এ ধরণের কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার সকালে বিদ্যালয় এলাকায় শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেন।

জানা গেছে, করোনাভাইরাস সংক্রমণরোধে দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ন্যায় তুলাই শিমুল উচ্চ বিদ্যালয়ও বন্ধ রয়েছে। যদিও সরকারের ঘোষণা অনুযায়ী নির্ধারিত নিয়মে পরীক্ষা দিতে হবে সব শিক্ষার্থীকে।

কিন্তু বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ মাসিক বেতন, ভাতা ও বিভিন্ন ফি বাবদ প্রতি শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ১৫শ থেকে দুই হাজার টাকা ভয়ভীতি দেখিয়ে জোরপূর্বক আদায় করছে। এছাড়া পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করা যাবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের দাবি, লকডাউনে আয়-রোজগার বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সরকারের খাদ্য সহায়তায় চলতে হয়েছে একাধিক পরিবারকে। এ পরিস্থিতিতে স্কুল কর্তৃপক্ষের চাহিদা অনুযায়ী অর্থ পরিশোধ করা অভিভাবকদের সম্ভব নয়।

অবশ্য তুলাই শিমুল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক (ভারপ্রাপ্ত) আব্দুল করিম জানান, বিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে মাসিক বেতন ছাড়া অন্য কোনো চার্জ নেয়া হচ্ছে না। তবে কেউ যদি বেতন দিতে অপারগতা প্রকাশ করে তাদেরকে কোনো ধরনের চাপও সৃষ্টি করা হচ্ছে না।

খবর পেয়ে আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নূর ই আলম ঘটনাস্থলে যান। তিনি বলেন, যাদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করা হয়েছে আগামীকাল সকাল ১০টার মধ্যে অভিভাবকদের ডেকে এনে টাকা ফেরত দেয়ার নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।- যুগান্তর

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.