শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা: প্রতিবাদে শাহ মখদুম মেডিকেল কলেজে অবস্থান

প্রকাশিত: ৩:৪১ অপরাহ্ণ, শনি, ২৮ নভেম্বর ২০

নিউস্ব প্রতিনিধি।।

রাজশাহীর শাহ মখদুম মেডিকেল কলেজ বন্ধ ঘোষণা, মাইগ্রেশন ও শিক্ষার্থীদের ওপর হামলাকারীদের গ্রেপ্তার দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছেন কলেজের শিক্ষার্থীরা। আজ শনিবার সকাল ১১টার দিকে এই কর্মসূচি শুরু হয়।

গতকাল কলেজ কর্মচারীদের হামলায় অন্তত ১১ শিক্ষার্থী আহত হওয়ার পরে তারা এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন। আহত শিক্ষার্থীরা বর্তমানে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

২০১৪ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকেই নানা অনিয়মের বিরুদ্ধে আন্দোলন করে আসছিলেন শাহ মখদুম মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীরা। এসব অনিয়মের অভিযোগ তদন্ত শেষে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় শাহ মখদুম কলেজ কর্তৃপক্ষকে চিঠি দিয়ে জানায়, অধ্যায়নরত শিক্ষার্থীদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজের অধীনে পরিচালিত কলেজগুলোতে মাইগ্রেট করতে হবে এবং তারা নতুন করে আর শিক্ষার্থী ভর্তি নিতে পারবে না।

পরিচয় গোপন রাখার শর্তে আহত এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘গতকাল আমরা জানতে পারি শাহ মখদুম মেডিকেল কলেজ আবারও শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করতে যাচ্ছে। মন্ত্রণালয়ের একটি প্রতিনিধি দল কলেজে অবস্থান করছে। প্রতিনিধি দলের কাছে আমাদের দাবি উপস্থাপনের জন্য সন্ধ্যায় কলেজ ক্যাম্পাসে প্রবেশ করলে কর্মচারীরা মেইন গেট বন্ধ করে দেয়। এরপর বাঁশ ও লোহার রড দিয়ে আমাদের ওপর হামলা চালায়। হামলার সময় কয়েক জন বহিরাগত উপস্থিত ছিলেন। এ ঘটনায় চন্দ্রিমা থানায় নয় জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা ১২ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে চন্দ্রিমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সিরাজুম মুনীর বলেন, ‘গতকাল রাতে কলেজের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের (এমডি) ছোট ভাই মিঠু ও তার স্ত্রী বিউটিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। হামলার সময় তারা ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে।’

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.