শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ছাড়া বিকল্প নেই : সচিব

প্রকাশিত: ৫:৩৭ অপরাহ্ণ, শনি, ১২ জুন ২১

নিউজ ডেস্ক।।

শিক্ষাসচিব মো. মাহবুব হোসেন জানিয়েছেন, স্বাস্থ্যঝুঁকির কথা বিবেচনা করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ রাখা হয়েছে। কিন্তু আমরা বিকল্প পদ্ধতিতে শিক্ষাদান অব্যাহত রেখেছি। হতে পারে যে এই বিকল্প পদ্ধতির শিক্ষা ব্যবস্থায় শিক্ষার্থীরা অভ্যস্থ নয় বলে এখনও তারা নিজেদেরকে কমফোর্ট জোনে নিয়ে যেতে পারছে না।

আজ শনিবার ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজে বিশ্ব পরিবেশ দিবস উপলক্ষে আয়োজিত বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিতে তিনি এসব কথা বলেন।

শিক্ষাসচিব বলেন, এই মুহূর্তে এর চেয়ে বিকল্প তো আমাদের আর কিছু নেই। শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করে বাংলাদেশের আর্থসামাজিক ব্যবস্থা কিংবা আইসিটি নির্ভর যে অবকাঠামো আছে তার সর্বোচ্চ ব্যবহার করার চেষ্টা করছি।

তিনি আরো বলেন, যেদিন থেকে আমরা স্কুল কলেজ বন্ধ রেখেছি সেদিন থেকে কম্পানিগুলোর প্রতি আমাদের একটি নির্দেশনা ছিল যেদিন আমরা যতদ্রুত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো খুলে দিব তখন একটি রি-ওপেনিং প্লান করতে হবে। আমরা যখন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলবো তখন আগের মতো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো আগের মতো করে চালাতে পারবো না। রি-ওপেনং প্লানটা কি হবে সেটা আমাদের বোর্ডে উপস্থাপন করা হয়েছিল। আমাদের কাছে এই রি-ওপেনিং প্লানটা অনেক আকর্ষণীয় মনে হয়েছে। আমরা এই প্লানটাকে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তরে দিয়েছি এবং এটি অনুসরণ করে যেন আরো বড় আকারের একটি রি-ওপেনিং প্লান করে।

ইতিমধ্যে মাউশি থেকে এটি বাস্তবায়ন করা হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, সারা বাংলাদেশে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যেন অনুসরণীয় হয়। তো যখনই আমরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলবো তখন ঐ রি-ওপেনিং প্লানকে অনুসরণ করতে হবে। ওই প্লান অনুযায়ী নির্দেশনা দেওয়া আছে, প্রতিটি ক্লাসরুম কেমন হবে, শিক্ষার্থীরা কিভাবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আসবে, শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কেমন আচরণ হবে, অভিভাবকদের আচরণ কেমন হবে তার পরিষ্কার নির্দেশনা দেওয়া আছে।

কর্মসূচিতে আরো উপস্থিত ছিলেন ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজের অধ্যক্ষ ব্র্রিগেডিয়ার জেনারেল কাজী শামীম ফরহাদ ও কলেজের শিক্ষক, অভিভাবক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.