শান্তিতে নোবেল গেলো রাশিয়া,ইউক্রেন ও বেলারুশ

অনলাইন ডেস্ক।।

শান্তিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখায় এ বছর নোবেল সর্বোচ্চ পুরস্কার পেয়েছেন এক মানবাধিকারকর্মী ও দুই মানবাধিকার সংস্থা। শুক্রবার বাংলাদেশ সময় বিকাল ৩টায় নরওয়ের রাজধানী অসলোতে নোবেল ইনস্টিটিউট শান্তিতে নোবেল বিজয়ী ব্যক্তি ও সংস্থা দুটির নাম ঘোষণা করেছে।

কারাবন্দি বেলারুশের মানবাধিকারকর্মী অ্যালেস বিয়ালিয়াৎস্কি, রাশিয়ার মানবাধিকার সংস্থা মেমোরিয়াল এবং ইউক্রেনের মানবাধিকার সংস্থা সেন্টার ফর সিভিল লিবার্টিজকে চলতি বছরের নোবেল শান্তি পুরস্কারে মনোনীত করা হয়েছে।

মানবাধিকার, গণতন্ত্র ও শান্তিপূর্ণ সহাবস্থানে ভূমিকা রেখে শান্তির নোবেলজয়ী প্রতিবেশী তিন দেশ— বেলারুশ, রাশিয়া ও ইউক্রেনকে শুভেচ্ছা জানিয়েছে নরওয়েজিয়ান নোবেল কমিটি। এ কথা বলেছেন কমিটির চেয়ারপারসন বেরিট রেইস অ্যান্ডারসন।

‘যুদ্ধাপরাধ, মানবাধিকার লঙ্ঘন এবং ক্ষমতার অপব্যবহার প্রমাণ করতে তারা বহু অবদান রেখেছেন। শান্তি ও গণতন্ত্রের জন্য নাগরিক আন্দোলন কতটা জরুরি সম্মিলিতভাবে দেখিয়েছেন তারা। ’

পুরস্কার হিসেবে এক কোটি সুইডিশ ক্রোন পাবেন শান্তিতে নোবেলজয়ীরা। ডিসেম্বরের ১০ তারিখে আলফ্রেড নোবেলের মৃত্যুবার্ষিকীতে তাদের হাতে পুরস্কার ও অর্থ বুঝিয়ে দেওয়া হবে।

এর আগে গত বছর শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পেয়েছিলেন দুই সাংবাদিক। তারা হলেন ফিলিপিনের মারিয়া রেসা ও রুশ সাংবাদিক দিমিত্রি মুরাতভ।

১৯০১ থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত শান্তিতে নোবেল পুরস্কার দেওয়া হয়েছে ১০২ বার। এর মধ্যে বিশ্বের সংকটপূর্ণ নানা ইস্যুতে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে ২৫ বার শান্তিতে নোবেল পুরস্কার দেওয়া হয় বিভিন্ন সংস্থাকে।