রাবির প্রশাসনিক ও সিনেট ভবনে তালা ঝুলছে

প্রকাশিত: ৮:১৩ অপরাহ্ণ, সোম, ৩ মে ২১

রাবি প্রতিনিধিঃ

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের ‘দুর্নীতি ও অনিয়ম রুখে দিতে’ টানা দ্বিতীয় দিনের মতো প্রশাসনিক ও সিনেট ভবন তালাবদ্ধ করে রেখেছেন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক ও বর্তমান কমিটির চাকরি প্রত্যাশী নেতাকর্মীরা।

রোববার (২ মে) সকালে উপাচার্য ভবনে তালা ঝুলিয়ে দেন ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। এরপর দুটি প্রশাসন ভবন এবং সিনেট ভবনেও তালা ঝুলিয়ে দেওয়া হয়। গতকাল দুপুরে উপাচার্যের বাসভবনের তালা খুলে দিলেও দুটি প্রশাসনিক ভবন ও সিনেট ভবনে সোমবারও (৩ মে) ঝুলছে তালা।
রাবি উপাচার্য যেন আর কোনো ধরনের প্রশাসনিক কার্যক্রম পরিচালনা করতে না পারেন, সে জন্য তারা এই কঠোর অবস্থান নিয়েছেন বলে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা জানান।

বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি ইলিয়াস হোসেন বলেন, শুরু থেকেই তিনি দুর্নীতি করছেন। মেয়াদের শেষ সময়ে যেন তিনি অতীতের মতো আর দুর্নীতি করতে না পারেন সে জন্য আমরা অবস্থান নিয়েছি।
রোববার সকালে উপাচার্যের বাসভবনে ফাইনান্স কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। সভা স্থগিতের দাবিতে সকাল সাড়ে ৮টায় উপাচার্য ভবনের দরজায় তালা ঝুলিয়ে দেন নেতাকর্মীরা। পরবর্তীতে ‘অনিবার্য কারণে’ ফাইনান্স কমিটির সভা স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নেয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান বলেন, ‘আন্দোলনকারীরা গত দিনের মতো আজও তালা ঝুলিয়ে রেখেছে। যদিও লকডাউনের কারণে প্রশাসনিক কিংবা সিনেট ভবনে অফিসিয়াল কোনো কাজ ছিল না, তবুও আমরা চেষ্টা করছি যাতে তারা তালা খুলে দেয়।’

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.