রওশন এরশাদকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হওয়া সিদ্ধান্ত স্থগিত

অনলাইন ডেস্ক।।

জিএম কা‌দেরের পরিবর্তে দল‌টির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম‌্যান হি‌সে‌বে বি‌রোধীদলীয় নেতা ও  পা‌র্টির প্রধান পৃষ্ঠ‌পোষক বেগম রওশন এরশাদ দলীয় কার্যক্রম প‌রিচালনা কর‌বেন ব‌লে যে সিদ্ধান্ত নেওয়া হ‌য়ে‌ছে তা স্থ‌গিত ক‌রা হ‌য়ে‌ছে।

বুধবার (১৪ ডিসেম্বর) রা‌ত ১০টায় বি‌রোধী নেতার রাজ‌নৈ‌তিক স‌চিব গোলাম মসীহ সংবাদ মাধ্যমকে এ তথ‌্য নি‌শ্চিত ক‌রে‌ছেন। 

এদি‌কে, রাত সাড়ে ৯টার দি‌কে বি‌রোধীদ‌লীয় নেতা রওশন এরশা‌দের পক্ষ থে‌কে এক প্রেস বিজ্ঞ‌প্তি‌তে জানা‌নো হয়, জাতীয় পার্টির রাজনৈতিক কার্যক্রম অব্যাহত রাখার স্বার্থে সংখ্যাগরিষ্ঠ কো-চেয়ারম্যানদের মতামত ও সিদ্ধান্ত মোতাবেক দলীয় কার্যক্রম পরিচালনায় আইনি জটিলতা নিরসন না হওয়া পর্যন্ত জাতীয় পার্টির প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদ দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করবেন। বুধবার রাতে এ বিষয়ে সংখ্যাগরিষ্ঠ কো-চেয়ারম্যানের মতামতে দেওয়া সিদ্ধান্তপত্রে স্বাক্ষর করেছেন।  

কো-চেয়ারম্যানদের ম‌ধ্যে এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, অ্যাড. কাজী ফিরোজ রশীদ, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, অ্যাড. সালমা ইসলাম এবং প্রেসিডিয়াম সদস্য আলহাজ শফিকুল ইসলাম সেন্টু ও নাছরিন জাহান রত্না স্বাক্ষর ক‌রে‌ছেন ব‌লেও জানা‌নো হ‌য়ে‌ছে।

ত‌বে সেসময়, এই ধর‌নের কো‌নও সিদ্ধান্ত হয়‌নি ব‌লে জা‌নি‌য়ে‌ছেন দল‌টির মহাসচিব মু‌জিবুল হক চুন্নু। তি‌নি ব‌লেন, আমা‌দের কো-চেয়ারম‌্যান‌দের কো‌নও বৈঠক হয়‌নি। আর দলীয়ভা‌বে উনা‌কে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম‌্যান করার সিদ্ধান্ত হয়‌নি, করার সু‌যোগও নেই।

এর আগে, সকা‌লে গঠনতন্ত্র অনুযায়ী জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হিসেবে গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) কাদের দায়িত্ব পালন করতে পারবেন না বলে আদেশ দেন আপিল বিভাগ। একই সঙ্গে এ বিষয়ে নিম্ন আদালতে চলমান মামলা আগামী ৯ জানুয়ারির মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ দিয়েছেন সর্বোচ্চ আদালত। পাশাপাশি জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হিসেবে জিএম কাদের দায়িত্ব পালন করতে পারবেন বলে দেওয়া হাইকোর্টের আদেশ বাতিল করেছেন আপিল বিভাগ।

বুধবার (১৪ ডিসেম্বর) প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ এ আদেশ দেন।

এদিকে, নিম্ন আদালতে মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত জিএম কাদের পার্টির চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন আইনজীবী সাঈদ আহমেদ রাজা।

আদালতে আবেদনকারীর পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট সাঈদ আহমেদ রাজা। জিএম কাদেরের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট শেখ মুহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম।