যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও শিক্ষকদের এমপিও বাতিল করে আদেশ জারি

প্রকাশিত: ৪:৩৮ অপরাহ্ণ, বুধ, ১৩ জানুয়ারি ২১

নিজস্ব প্রতিবেদক।।
জালিয়াতি করে শিক্ষক নিয়োগ দেয়ার অভিযোগে সিরাজগঞ্জ জেলার রায়গঞ্জ উপজেলার দৈবজ্ঞগাঁতী এস কে মডেল কারিগরি হাই স্কুল এন্ড বিএম কলেজের ব্যবসায় ব্যবস্থাপনা (বিএম) শাখার এমপিও বাতিল করা হয়েছে।

একইসাথে প্রতিষ্ঠানের এমপিওভুক্ত থাকা তিন শিক্ষক-কর্মচারীর এমপিও বাতিল করা হয়েছে এবং তাদের নাম এমপিও ডাটাবেজ থেকে বাদ দিয়েছে কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর।

রোববার (৩ জানুয়ারি) কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে শিক্ষকদের এমপিও নাম বাদ দেয়ার বিষয়টি জানিয়ে আদেশ জারি করা হয়েছে।

এমপিও বাতিল করা শিক্ষকরা হলেন- প্রতিষ্ঠানটির বিএম শাখার বাংলা প্রভাষক মো. আশাদুল ইসলাম, অফিস সহাকারী কাম হিসাব সহকারী মো. এরশাদ আলী ও প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মো. শহিদুল ইসলামের মেয়ে কম্পিউটার অ্যাসিস্টেন্ট লাবনী খাতুন।

জানা গেছে, কলেজের প্রতিষ্ঠাতা মো. শহিদুল ইসলামের বিরুদ্ধে নিয়োগ বাণিজ্যের অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে। এছাড়া শর্ত অমান্য করে ভুয়া শিক্ষকের নামে এমপিও টাকা উত্তোলন করেছেন তিনি। বেআইনিভাবে স্পেশালাইজেশন ও নাম পরিবর্তনের মাধ্যমে তিনজন শিক্ষক এমপিওভুক্ত হয়ে বেতন-ভাতা উত্তোলন করায় তাদের এমপিও চূড়ান্তভাবে বাতিল করে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

একইসাথে তিন শিক্ষক-কর্মচারীর এমপিও চূড়ান্তভাবে বাতিল করে টাইমস্কেল বাবদ উত্তোলিত টাকা চালানের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট খাতে জমা দিতে বলা হয়েছে।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.