যেকারণে হিরো আলমের মনোনয়ন বাতিল

 নিজস্ব প্রতিবেদক।।

বগুড়ার দুই আসনে (বগুড়া-৪ ও ৬) স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন হিরো আলম। তবে ভোটার তালিকায় গরমিল থাকায় তার মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে। আর তাই প্রার্থিতা ফিরে পেতে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

হিরো আলম গণমাধ্যমকে জানান, সোমবার (৯ জানুয়ারি) সকালে রাজধানীর আগারগাঁও নির্বাচন কমিশন অফিসে যাব। কাগজ জমা দেব। এতে যদি কাজ না হয় তাহলে প্রার্থিতা ফিরে পেতে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হব।

তিনি আরও বলেন, হিরো আলম কখনও হতাশ হয় না। এলাকার মানুষ আমাকে নির্বাচনে দাঁড়াতে উৎসাহ দিয়েছে। তারা কথা দিয়েছে, এবার আমাকে ভোট দেবে।

বগুড়া জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক সাইফুল ইসলাম বলেন, আশরাফুল ইসলাম আলম ওরফে হিরো আলমের ১ শতাংশ ভোটার তালিকায় গরমিল পাওয়া গেছে। সেখানে কয়েকজন ভোটারের সমর্থন না পাওয়ায় মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে জাতীয় পার্টি থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছিলেন হিরো আলম। কিন্তু ১০ জনের স্বাক্ষরে গরমিল থাকায় তার মনোনয়নপত্র বাতিল করেন রিটার্নিং কর্মকর্তা। এরপর মনোনয়ন ফিরে পেতে নির্বাচন কমিশনে আপিল করেন তিনি। আপিলেও তার প্রার্থিতা না টিকলে উচ্চ আদালতে যান। পরবর্তীতে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে হিরো আলমকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহের নির্দেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। ওই নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সিংহ প্রতীক পেয়েছিলেন হিরো আলম।