মোবাইলে ফল পাবেন শিক্ষার্থীরা দ্বিগুণ বাড়ানো হচ্ছে পরীক্ষার ফি

প্রকাশিত: ১০:০৯ পূর্বাহ্ণ, সোম, ২৩ আগস্ট ২১

নিজস্ব প্রতিনিধি।।

মোবাইলে গুচ্ছ পরীক্ষার প্রাথমিক আবেদনের ফলাফল পাবেন শিক্ষার্থীরা। প্রাথমিকভাবে বাছাইকৃত শিক্ষার্থীরাই দ্বিতীয় ধাপে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য গুচ্ছ পরীক্ষায় অংশ নেবেন। শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ভিসিদের সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সেখানে বলা হয়েছে শুধু প্রাথমিকভাবে উত্তীর্ণ বা বাছাইকৃত শিক্ষার্থীরাই তাদের মুঠোফোনে ফলাফল জানতে পারবেন। এ দিকে গুচ্ছ পরীক্ষায় অংশ নেয়ার জন্য আগের নির্ধারিত ফি ৬০০ টাকা এখন দ্বিগুণ করার ঘোষণা দেয়া হয়েছে। অবশ্য এ নিয়ে ইতোমধ্যেই শিক্ষার্থীদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়াও দেখা দিয়েছে। তারা কোনো মতেই পরীক্ষার ফি বাড়ানো পক্ষে নয়।

গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষার টেকনিক্যাল কমিটির আহ্বায়ক ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির ভিসি অধ্যাপক ড. মোনাজ আহমেদ জানিয়েছেন, প্রাথমিক আবেদনে যারা নির্বাচিত হবেন শুধু তাদের এসএমএসের মাধ্যমে ফল জানানো হবে। আজ সোমবার থেকে এই ফল প্রদান শুরু হতে পারে বলেও সূত্র জানিয়েছে। এরপর ১ সেপ্টেম্বর থেকে চূড়ান্ত আবেদন শুরু হবে। সূত্র আরো জানায়, চূড়ান্ত আবেদন ফি এক হাজার ২০০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। এ বিষয়ে বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিস্তারিত জানানো হবে।

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার সাথে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ২০টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার জন্য প্রাথমিকভাবে আবেদন করেছেন ৩ লাখ ৬০ হাজার ৪০৬ জন শিক্ষার্থী। ভর্তিচ্ছুক শিক্ষার্থীদের এ প্রাথমিক আবেদন যাচাই-বাছাই শেষে যেসব শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়েছে তাদের তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছে। শনিবার রাতে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার কোর কমিটির মিটিংয়ে তৈরিকৃত এ ফল হস্তান্তর করেছে টেকনিক্যাল কমিটি।

শিক্ষার্থীদের জন্য নির্ধারিত পরীক্ষার ফি বিষয়ে অধ্যাপক মোনাজ আহমেদ বলেন, আমরা প্রথমে ৬০০ টাকা করে ফি নেয়ার কথা ভেবেছিলাম। কিন্তু শনিবারের মিটিংয়ে ১ হাজার ২০০ টাকা নেয়ার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

আবেদনের ফি দ্বিগুণ বাড়ানো হয়েছে কেন, এই প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, প্রাথমিক আবেদনে অ্যাপ্লিকেন্ট সংখ্যা অনেক কম। আমরাও বুঝতেছি না যে প্রাথমিক আবেদনের সংখ্যা এত কম কেন। অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়েও আবেদনকারীর সংখ্যা এবার তুলনামূলকভাবে কম। সেটার অন্য কোনো কারণ থাকতে পারে। ভর্তি পরীক্ষার ফি দ্বিগুণ করার পক্ষে যক্তি তুলে ধরে অধ্যাপক মোনাজ আহমেদ বলেন, পরীক্ষা আয়োজন করতে আমাদের একটি খরচ বহন করতে হয়। আমার ধরেছিলাম সাড়ে চার লাখের মতো প্রাথমিক আবেদন করবে। কিন্তু দেখা যাচ্ছে আবেদন পড়েছে ৩ লাখ ৬০ হাজারের মতো। এজন্য আমাদের পক্ষে ওই খরচ বহন করা খুব ডিফিকাল্ট হয়ে যাবে। ভর্তি প্রক্রিয়ার খরচটাতো আর কেউ বহন করবে না। এ জন্য ২০ গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার কোর কমিটির মিটিংয়ে চূড়ান্ত ভর্তি পরীক্ষার ফি ৬০০ টাকা থেকে দ্বিগুণ অর্থাৎ ১২০০ টাকা করা হয়েছে।

সূত্র জানায়, গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার প্রাথমিক আবেদন পড়েছে তিন লাখ ৬১ হাজার। এর মধ্যে বিজ্ঞান বিভাগে মোট আবেদন করেছেন এক লাখ ৯২ হাজার শিক্ষার্থী, বাণিজ্য বিভাগে মোট আবেদন করেছেন ৫৮ হাজার আর মানবিকে আবেদন করেছেন ১ লাখ সাত হাজার শিক্ষার্থী। প্রঙ্গত প্রতিটি বিভাগে সর্বোচ্চ দেড় লাখ ভর্তি হতে ইচ্ছুক শিক্ষার্থী ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন। ফলে বাণিজ্য ও মানবিকে প্রাথমিক আবেদন করা সবাই চূড়ান্ত আবেদন করতে পারবেন।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.