মোদী ৩য় মেয়াদেও ভারতের প্রধানমন্ত্রী থাকতে চান

অনলাইন ডেস্ক।।

ভারতের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তিনিই থাকতে প্রস্তুত। এমনই ইঙ্গিত দিয়েছেন টানা দুই মেয়াদে প্রধানমন্ত্রীর পদে থাকা নরেন্দ্র দামোদর দাস মোদি।

 বৃহস্পতিবার(১২ মে) গুজরাট সরকারের একটি আর্থিক সহায়তা প্রকল্পের সাহায্যপ্রাপ্তদের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী মোদি ভার্চুয়ালি ভাষণ দেওয়ার সময় নিজের মনোভাব তুলে ধরেন।
বিজেপি সরকারের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, একবার আমি একজন নেতার সঙ্গে দেখা করেছিলাম। তিনি একজন বিরোধী সিনিয়র নেতা। রাজনৈতিকভাবে তিনি আমার প্রতিপক্ষ। কিন্তু আমি তাকে সম্মান করি। কিছু সমস্যা সমাধানের জন্য একদিন তিনি আমার সঙ্গে দেখা করতে আসেন। তখন তিনি বলেছিলেন, মোদিজি, এখন আর কী চান? দেশ আপনাকে দু’দুবার প্রধানমন্ত্রী করেছে।

ওই কথার জের ধরে প্রধানমন্ত্রী মোদি বলেছেন, ওই সিনিয়ার নেতা মনে করেন যে দু’বার প্রধানমন্ত্রী হওয়াই সবচেয়ে বড় সাফল্য। তিনি জানেন না যে, মোদি অন্য কিছুর জন্য তৈরি। গুজরাটের মাটিতে আমি বড় হয়েছি। আমি মনে করি এখনই আমার বিশ্রামের সময় হয়নি।
‘‘তবে যা ঘটছে তা সবই ভালো একথা আমি বলতে পারব না। লক্ষ্যের একশ শতাংশ ছোঁয়াই আমার স্বপ্ন। সরকারি ব্যবস্থাকে অভ্যাসে পরিণত করুন, নাগরিকদের মধ্যে আস্থা তৈরি করুন। ’’ যোগ করেন নরেন্দ্র মোদি।

৮ বছর আগে নিজের বক্তব্যের কথাও তুলে ধরে মোদি বলেছেন, ২০১৪ সালে প্রথম যখন ক্ষমতায় আসি, সেই সময় ভারতে অর্ধেকের বেশি জায়গায় শৌচাগার, টিকাকরণ, বিদ্যুৎ, ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে বহু দূরে ছিল। কিন্তু এই কয়েক বছরে সকলের প্রচেষ্টায় বহু প্রকল্পই ১০০ শতাংশ কার্যকর হয়েছে। এগুলি ছিল কঠিন কাজ এবং রাজনীতিবিদরা যা করতে ভয় পান।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, তিনি এখানে রাজনীতি করতে নয়, দেশের নাগরিকদের সেবা করতে এসেছেন।

তার বক্তব্যে ওই বিরোধী নেতার নাম বলেননি মোদি। যদিও এই বক্তব্যের একমাস আগেই মহারাষ্ট্রের এনসিপি নেতা শরদ পাওয়ার দেখা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে। সেখানে তিনি শিবসেনা নেতা, সাংসদ সঞ্জয় রাউত এবং মহারাষ্ট্রের উপমুখ্যমন্ত্রী অজিত পাওয়ারের পরিবারের বিরুদ্ধে বিভিন্নি কেন্দ্রীয় সংস্থার নেওয়া পদক্ষেপের বিরুদ্ধে উষ্মা প্রকাশ করেছিলেন।