মেঘ কেটে গেলে নামবে শীত

প্রকাশিত: ৮:০৫ পূর্বাহ্ণ, শুক্র, ২৭ নভেম্বর ২০

নিউজ ডেস্ক।।

পঞ্জিকার পাতা ধরে শীত আসতে সপ্তাহ দুয়েক বাকি থাকলেও তার আমেজ বিরাজ করছে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে।

উত্তরে তাপমাত্রা নেমেছে ১০.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াসে, সাগরে নিম্নচাপ

ভোরের কুয়াশা, হিমেল হাওয়া, সকালের মিষ্টি রোদ এখন প্রকৃতিতে। শীতের আমেজের সঙ্গে শীতের পিঠাপুলি ও সবজি এখন মিলছে রাস্তার মোড়ে-বাজারে। ভিড় বাড়ছে শীত বস্ত্রের পসরায়ও।

কার্তিকের শেষভাগে ঝিরিঝিরি বৃষ্টির প্রভাবে দু’তিন ছিল হিমহিম ভাব। তখন সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নেমেছিল।

এরইমধ্যে সাগরে ছিল ঘূর্ণিঝড় নিভার। এর প্রভাব বাংলাদেশে পড়েনি।

তবে মাঝ অগ্রহায়ণে কয়েকদিন ঊর্ধ্বাকাশে মেঘের আনাগোনা বাড়বে। মেঘ কেটে গেলেই শীতের আমেজ বাড়ার আভাস দিচ্ছেন আবহাওয়াবিদরা।

জ্যেষ্ঠ আবহাওয়াবিদ এ কে এম নাজমুল হক  বলেন, “ঘূর্ণিঝড়টি তামিলনাড়ু অতিক্রম করে গুরুত্বহীন হয়ে পড়েছে। শনিবার থেকে রাতের তাপমাত্রা দুয়েকদিন কমতে পারে। এসময় শীতের অনুভূতি বাড়বে।”

তিনি জানান, ডিসেম্বর-জানুয়ারিতে শীতের তীব্রতা থাকবে। এখন শীতের আমেজ থাকবে অঞ্চল ভেদে। রাজধানীতেও মাঝে মাঝে ঠাণ্ডা অনভূতি বাড়বে। তবে শীত আসবে আরও কিছু দিন পর।

বৃহস্পতিবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল তেতুঁলিয়ায় ১১ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে কক্সবাজারে ৩১ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, দক্ষিণ বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় এলাকায় অবস্থানরত অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘নিভার’ পশ্চিম উত্তর পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে তামিলনাড়ু-পুদুচেরি উপকূল অতিক্রম করেছে।

পরবর্তীতে শক্তি হারিয়ে এটি আরও উত্তর উত্তর-পশ্চিমে অগ্রসর হয়ে ঘূর্ণিঝড়, গভীর নিম্নচাপে রূপ নেয়।

বর্তমানে উত্তর তামিলনাড়ু ও তৎসংলগ্ন এলাকায় গভীর নিম্নচাপটি অবস্থান করছে।

এটি আরও উত্তর পশ্চিম দিকে ক্রমান্বয়ে দুর্বল ও গুরুত্বহীন হয়ে পড়বে।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.