মূল্যস্ফিতি কমিয়ে ঘুরে দাড়াচ্ছে শ্রীলঙ্কা

অনলাইন ডেস্ক।।

চলতি বছরের অক্টোবরে শ্রীলঙ্কার মূল্যস্ফীতি বার্ষিকভিত্তিতে বেড়ে দাঁড়িয়ে ছিল ৭০ দশমিক ৬ শতাংশে। নভেম্বরে তা কমে ৬৫ শতাংশে দাঁড়ায়। বুধবার (২১ ডিসেম্বর) দেশটির পরিসংখ্যান বিভাগ এ তথ্য জানিয়েছে। খবর রয়টার্সের।

বিভাগটি এক বিবৃতিতে জানায়, নভেম্বরে খাদ্যের মূল্য বেড়ে দাঁড়ায় ৬৯ দশমিক ৮ শতাংশে। তখন অন্যান্য পণ্যে মূল্যস্ফীতি দেখা যায় ৬০ দশমিক ৪ শতাংশ।

প্রায় এক বছর ধরে শ্রীলঙ্কার মানুষ উচ্চ মূল্যস্ফীতির সঙ্গে লড়াই করছে। মূলত কয়েক দশমের মধ্যে তীব্র অর্থনৈতিক সংকট ও কৃষিক্ষেত্রে রাসায়নিক সার নিষিদ্ধের কারণে এমন পরিস্থিতি তৈরি হয়, যদিও পরে এই সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসে দেশটি।

ফার্স্ট ক্যাপিটালের গবেষণা প্রধান ডিমান্থা ম্যাথিউ বলেছেন, নভেম্বর প্রত্যাশার চেয়ে দ্রুত হ্রাস পেয়েছে ও এটি অব্যাহত থাকার সম্ভাবনা রয়েছে।

তিনি বলেন, চলতি বছরের শেষের দিকে মূল্যস্ফীতি কমে ৬০ শতাংশে আসতে পারে। তাছাড়া ধারণা করা হচ্ছে, আগামী বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে একক অঙ্কের ঘরে চলে আসবে।

সেন্ট্রাল ব্যাংক অব শ্রীলঙ্কার গভর্নর নন্দলাল ওয়েরাসিংহে আগেই পূর্বাভাসে জানিয়ে ছিলেন, মুদ্রানীতির বর্তমান প্রবণতা অনুসরণ করা হলে আগামী বছরের শেষ নাগাদ মূল্যস্ফীতি চার থেকে পাঁচ শতাংশে নেমে আসতে পারে।

সেপ্টেম্বরে শ্রীলঙ্কা ২ দশমিক ৯ বিলিয়ন ডলারের বেল আউটের জন্য আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের সঙ্গে একটি প্রাথমিক চুক্তিতে পৌঁছায়। তাছাড়া সংকটের সময় ভারত ও চীন থেকেও ব্যাপক সহায়তা পেয়েছে দেশটি।