বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিয়োগেও হবে পুলিশ ভ্যারিফিকেশন

প্রকাশিত: ৮:২১ অপরাহ্ণ, শনি, ১৭ জুলাই ২১

অনলাইন ডেস্ক।।

বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে তৃতীয় ধাপে ৫৪ হাজারের বেশি শিক্ষক নিয়োগের গণবিজ্ঞপ্তি অনুসারে ৩৮ হাজার ২৮৬ টি পদে নিয়োগ সুপারিশ করেছে এনটিআরসিএ। এরমধ্যে ৩৪ হাজার ৬১০টি এমপিওভুক্ত পদে ও ৩ হাজার ৬৭৬টি ননএমপিও পদে নিবন্ধিত প্রার্থীদের নিয়োগ সুপারিশ করা হয়েছে। সুপারিশ পাওয়া প্রার্থীদের পুলিশ ভেরিফিকেশন হবে। যাচাই শেষে ওয়েবসাইটে সুপারিশ পত্র প্রকাশ করা হবে। এনটিআরসিএ সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। বৃহস্পতিবার রাতে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির সাথে এনটিআরসিএর কর্মকর্তাদের আলোচনা হয়েছে। আলোচনায় শিক্ষামন্ত্রী সুপারিশ করা প্রার্থীদের পুলিশ ভেরিফিকেশন করতে বলেছেন। সে নির্দেশনা অনুসারে সুপারিশ করা প্রার্থীদের পুলিশ ভেরিফিকেশন করা হবে। এরপর ওয়েবসাইটে সুপারিশ পত্র প্রকাশ করা হবে।
এনটিআরসিএর কর্মকর্তারা  বলেন, কিছু প্রক্রিয়াগত কাজ শেষে ওয়েবসাইটে প্রার্থীদের সুপারিশপত্র প্রকাশ করা হবে। অ্যাপ্লিকেন্ট আইডি ও পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করে সুপারিশপত্র ডাউনলোড করতে হবে। তারপর তা প্রিন্ট করতে হবে। এরপর সুপারিশপত্র ও সব সনদ নিয়ে প্রতিষ্ঠান যোগদান করতে হবে। সুপারিশপত্রে প্রার্থীদের যোগদান সংক্রান্ত সব নির্দেশনা দেয়া হবে।
এদিকে সুপারিশপ্রাপ্তদের কি কি কাগজপত্র লাগবে সে বিষয়ে পরামর্শ দিয়েছেন এনটিআরসিএর সুপারিশপ্রাপ্ত শিক্ষকরা। তারা  জানান, সুপারিশ পত্র, শিক্ষাগত যোগ্যতার সকল সনদপত্রের সত্যায়িত ফটোকপি, জাতীয় পরিচয় পত্রের সত্যায়িত ফটোকপি ও সদ্য তোলা এক কপি পাসপোর্ট সাইজের সত্যয়িত ছবি সংযুক্ত করে নিয়োগপত্র প্রাপ্তির জন্য সুপারিশ প্রাপ্ত প্রতিষ্ঠানের প্রধান বরাবর আবেদন করতে হবে। এরপর নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে প্রতিষ্ঠান প্রধান নিয়োগ পত্র প্রদান করবেন। নিয়োগ পত্র প্রাপ্তির পর নিয়োগ পত্রে উল্লেখিত সময়সীমার মধ্যে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানে যোগদান করতে হবে।
শিক্ষকরা আরও জানিয়েছেন, যোগদান করার পর প্রতিষ্ঠান প্রধানের ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড ব্যবহার স্কুল-কলেজের জন্য ইএমআইএস সেলে আর মাদরাসার জন্য মেমিস সেলে অনলাইন এমপিওভুক্তির জন্য আবেদন করতে হবে।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.