বেসরকারি বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীর হারে দক্ষিণ এশিয়ায় শীর্ষে বাংলাদেশ

নিউজ ডেস্ক।।

বাংলাদেশের মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে ৯৪ শতাংশই পড়ছে বেসরকারি বিদ্যালয়গুলোতে। যা দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর গড় হারের তুলনায় দ্বিগুন ও বিশ্বের তুলনায় তিনগুনেরও বেশি। সম্প্রতি প্রকাশিত গ্লোবাল এডুকেশন মনিটরিং রিপোর্ট ২০২২-এর এক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে। ব্র্যাক, ইউনেস্কোসহ ৯টি প্রতিষ্ঠান এ প্রতিবেদন প্রণয়নে যুক্ত ছিল।

প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে, বিশ্বে মাধ্যমিক পর্যায়ের মোট শিক্ষার্থীদের মধ্যে ২৭ শতাংশ ও দক্ষিণ এশিয়ায় ৫০ শতাংশ শিক্ষার্থী পড়ালেখা করছে বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, বাংলাদেশে মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে ৯৪ শতাংশ শিক্ষার্থী বেসরকারি বিদ্যালয়গুলোতে পড়ালেখা করছে। এই হার দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি।

দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে আফগানিস্তানে ৪ শতাংশ, ভুটানে ১০ শতাংশ, ভারতে ৫১ শতাংশ, ইরানে ১১ শতাংশ, মালদ্বীপে ৫ শতাংশ, নেপালে ২৪ শতাংশ ও পাকিস্তানে ৩৪ শতাংশ মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থী পড়ছে বেসরকারি স্কুলে। আর বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পড়ে না শ্রীলংকার কোনো শিক্ষার্থী। দেশটির শতভাগ শিক্ষার্থী সরকারি স্কুলে পড়ার সুযোগ পাচ্ছে।

মাধ্যমিক পর্যায়ের মত দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশে বেশ দাপট দেখাচ্ছে বেসরকারি উদ্যোগে গড়ে ওঠা প্রাক প্রাথমিক, প্রাথমিক ও উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো।

গ্লোবাল এডুকেশন মনিটরিং রিপোর্ট ২০২২-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, প্রাক প্রাথমিকে বেসরকারি স্কুলে শিক্ষার্থীর হার বিশ্বে ৩৮ শতাংশ ও দক্ষিণ এশিয়ায় ৩২ শতাংশ। বাংলাদেশে এই হার ৫৫ শতাংশ।

প্রাক প্রাথমিকে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীর হারে দক্ষিণ এশিয়ায় শীর্ষে রয়েছে ইরান। দেশটির ৯৮ শতাংশ প্রাক প্রাথমিক শিক্ষার্থী পড়ালেখা করে বেসরকারি স্কুলে। এছাড়া, শ্রীলংকার ৮০ শতাংশ, নেপালের ৪৭ শতাংশ, পাকিস্তানের ৩৯ শতাংশ, মালদ্বীপের ৩৬ শতাংশ, ভারতের ২৫ শতাংশ ও ভুটানের ১৪ শতাংশ প্রাক প্রাথমিক শিক্ষার্থী বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে পড়ালেখা করছে।

এদিকে, প্রাথমিকে বেসরকারি বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীর হার বিশ্বে ১৯ শতাংশ এবং দক্ষিণ এশিয়ায় ৩৮ শতাংশ। বাংলাদেশে এই হার ২৪ শতাংশ।বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে প্রাথমিক স্তরের শিক্ষার্থী সংখ্যার হারে দক্ষিণ এশিয়ায় শীর্ষে রয়েছে ভারত। দেশটির ৪৫ শতাংশ প্রাথমিক শিক্ষার্থীকে পড়ালেখা করতে হচ্ছে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে।

এছাড়া, পাকিস্তানের ৩৪ শতাংশ, নেপালের ২৫ শতাংশ, ইরানের ১৫ শতাংশ, আফগানিস্তানের ৭ শতাংশ, ভুটানের ৪ শতাংশ, মালদ্বীপের ৪ শতাংশ ও শ্রীলঙ্কার ৩ শতাংশ প্রাথমিক শিক্ষার্থী পড়ালেখা করছে বেসরকারি বিদ্যালয়ে।

উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রে বিশ্বব্যাপী দাপট ধরে রেখেছে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো। বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে উচ্চ স্তরের শিক্ষার্থীর হার বিশ্বে ৩৩ শতাংশ ও দক্ষিণ এশিয়ায় ৪৯ শতাংশ। বাংলাদেশে এ হার ৩৬ শতাংশ।

দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে উচ্চ শিক্ষায় বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীর হারে শীর্ষে ভারত। দেশটির ৫৭ শতাংশ শিক্ষার্থীকে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান থেকে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করতে হয়। এছাড়া, আফগানিস্তানের ৫৪ শতাংশ, মালদ্বীপের ৪৯ শতাংশ, ইরানের ৪৩ শতাংশ, নেপালের ৩৭ শতাংশ, পাকিস্তানের ২১ শতাংশ, ভুটানের ১৩ শতাংশ ও শ্রীলঙ্কার ১২ শতাংশ শিক্ষার্থী উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করছে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান থেকে।