বৃত্তি পরীক্ষা দিতে হবে প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের

নিজস্ব প্রতিবেদক।।

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বৃত্তি পরীক্ষা দিতে হবে। সমাপনী পরীক্ষা বন্ধ থাকলেও পৃথকভাবে শিক্ষার্থীদের এই পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে। যদিও শুরুতে বৃত্তি পরীক্ষা হবে না বলে জানানো হয়েছিল।

জানা গেছে, চলতি বছর পঞ্চম শ্রেণি শেষ করা শিক্ষার্থীদের ‘প্রাথমিক বৃত্তি পরীক্ষা’ ডিসেম্বর মাসের শেষ সপ্তাহে অনুষ্ঠিত হবে। ইতিমধ্যে পরীক্ষা আয়োজনের প্রস্তুতি শুরু করেছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। এর অংশ হিসেবে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের কাছে শিক্ষার্থীদের তথ্য চাওয়া হয়েছে। প্রতিটি বিদ্যালয় থেকে ১০ শতাংশ করে শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন।

ওই সূত্র আরও জানায়, বৃত্তি পরীক্ষা হবে বাংলা, ইংরেজি, বিজ্ঞান ও গণিত বিষয়ের ওপর। এক দিনে চার বিষয়ের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। দুই ঘণ্টায় শিক্ষার্থীদের ২০০ নম্বর উত্তর করতে হবে। পরীক্ষা হবে উপজেলা পর্যায়ে। বিদ্যালয়গুলো নিজেরই ১০ শতাংশ শিক্ষার্থী বাছাই করবে। তবে কোনো শিক্ষার্থী বৃত্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে না চাইলে তাকে জোর করা যাবে না।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক শাহ রেজওয়ান হায়াত। তিনি জানান, সমাপনী পরীক্ষা বন্ধ থাকবে। তবে প্রতিটি স্কুল থেকে নির্দিষ্টসংখ্যক শিক্ষার্থীদের নিয়ে আগের মতো বৃত্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। আগামীকাল রবিবার থেকে স্কুলগুলোতেও বিষয়টি জানিয়ে দেওয়া হবে।