বীরগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রোভার স্কাউট এবং বিএনসিসি’র সেবা

খায়রুন নাহার বহ্নি বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ

বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রোগীদের সেবা প্রদান, উদ্বুদ্ধকরণ ও বিভিন্ন সেবা গ্রহণে সহযোগিতায় স্বেচ্ছাশ্রম অংশ নিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে রোভার স্কাউট ও গার্ল ইন রোভার স্কাউট এবং বিএনসিসি’র সদস্যরা। প্রতিদিন একটি করে ভাল কাজ করার ইচ্ছা থেকেই এই সেবা বেছে নিয়েছে তারা।

হাসপাতালের জনবল সংকটের অভাব পুরনের পাশাপাশি রোগীরাও পুরোপুরি সেবা পাচ্ছেন। এতে হাসপাতালে আসা রোগীরাও স্বস্থি প্রকাশ করেছেন। এতে তাদের হয়রানি কমেছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ জাহাঙ্গীর কবিরের অনুরোধে এবং বীরগঞ্জ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ খয়রুল ইসলাম চৌধুরীর সহযোগিতায় বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন বিএনসিসি এবং রোভার স্কাউট দল।

বীরগঞ্জ সরকারি কলেজের রোভার স্কাউট ও গার্ল ইন রোভার স্কাউটগণ ও বিএনসিসি এর শিক্ষার্থীরা নিয়মিত লেখাপড়ার পাশাপাশি হাসপাতালে এসে রোগীদের বিভিন্ন সেবা প্রদান ও সেবা গ্রহণে সহযোগিতা করছেন। ২৪জন রোভার স্কাউট ও গার্ল ইন রোভার স্কাউটগন এবং ১৭জন বিএনসিসি সদস্যরা প্রতিদিন ৬জন করে সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত এই হাসপাতালে সেবা দিতে স্বেচ্ছাসেবকের দায়িত্ব পালন করছেন বলে জানান তাদের দলনেতা, বীরগঞ্জ সরকারি কলেজের প্রভাষক আল মামুন।

রোভার স্কাউটগনের দলনেতা ও কলেজের প্রভাষক আল মামুন জানান, শিক্ষার পাশাপাশি সহ শিক্ষা হিসেবে ছাত্ররা এটি করছে। প্রতিদিন একটি ভাল কাজের অংশ হিসেবে রোগীদের সেবা দিয়ে দেশের সেবামুলক কাজে নিয়েজিত করতেই রোভার স্কাউট ও গার্ল ইন রোভার স্কাউটগনেরা এ কাজ করছে।

বীরগঞ্জ সরকারি কলেজের গার্ল ইন রোভার স্কাউটগনের দলনেতা গার্হস্থ্য বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক রোমানা ফারজানা জানান, গার্ল ইন রোভার স্কাউটগনের গ্রæপ করে দেওয়া আছে। প্রতিটি গ্রæপকে শিডিউল করে দেওয়া হয়েছে। যাদের যেদিন ক্লাস থাকবে না। তাদের সেদিন এখানে শিডিউল দেওয়া হয়েছে। এবং যাদের ক্লাস আছে তারা ক্লাস করবে। গ্রæপের সে সব শিক্ষার্থীদের ক্লাশ থাকে না তারা সেই দিন হাসপাতালের স্বেচ্ছাশ্রমের সেবাই অংশ নিচ্ছে। ফলে কারো লেখাপড়া করার কোন সমস্যা হবে না।

হাসপাতালে আসা অনেক প্রসূতি ও বৃদ্ধ রোগীরা জানায়, গ্রাম থেকে এখানে চিকিৎসা নিতে এসেছি। হাসপাতালের অনেক কিছু আমাদের অচেনা অজানা। তাদের সহযোগীতায় আমাদের কাছে কঠিন বিষয়গুলি সহজ হয়ে গেছে। বিশেষ করে কোথায় গেলে কোন সেবা পাওয়া যাবে। এ বিষয়টি নিয়ে বেশ ঝামেলা পড়তে হয়। এখন আর সেই ঝামেলা নেই।

বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ জাহাঙ্গীর কবির জানান, রোভার স্কাউট ও গার্ল ইন রোভার স্কাউটগণ নিয়মিত পড়ালেখার পাশাপাশি অবসর সময়ে হাসপাতালে এসে রোগীদের বিভিন্ন সেবা প্রদান ও সেবা গ্রহণে সহযোগিতা করবেন। প্রত্যন্ত অঞ্চলের রোগীরা কিভাবে, কোথায় সেবা পাবে, হাসপাতালের পরিচ্ছন্নতা রক্ষা পরামর্শসহ রোগীদের সার্বিক বিষয়ে সেবা প্রদান করছেন তারা। শিক্ষার্থীরা এ ধরনের সেবামূলক কাজে সম্পৃক্ততা, ভবিষ্যতে সঠিক নেতৃত্ব দিয়ে দেশকে সঠিক পথে পরিচালিত করবে তারাই। তাদের এ কাজকে অভিনন্দন জানায়।

তিনি বলেন, শিক্ষার্থীরা এ ধরনের সেবামূলক কাজে সম্পৃক্ত হলে, তাঁরা ভবিষ্যতে সঠিক নেতৃত্ব দিয়ে দেশকে সঠিক পথে পরিচালিত করবে ।

উল্লেখ্য, বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে সিনিয়র রোভার স্কাউট মো. আরমান, সিনিয়র ইন, রোভার এবং গার্লস স্কাউট নশিন শিলা, আরমান, পারভেজ, তরিকুল ইসলাম, ফরহাদ, ছাব্বির, উম্মে হাবিবা, জুঁই আকতারসহ ২৪জন শিক্ষার্থী তাদের লেখাপড়ার পাশাপাশি প্রতিদিনই নিয়মিত দায়িত্ব পালন করেছেন। এরপরে তাদের সাথে যোগ দেয় বিএনসিসি’র ১৭জন সদস্য।