‘বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক’ ছিলেন উচ্চ মাধ্যমিক পাস

চট্টগ্রামঃ নগরীর চকবাজার এলাকায় উচ্চ মাধ্যমিক পাস ভুয়া চিকিৎসককে আটক করে কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

 বৃহস্পতিবার জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আবদুল্লাহ আল মামুন পূর্ব অভিযোগের ভিত্তিতে পরিচালিত এক অভিযান শেষে ওই চিকিৎসককে ২০ হাজার টাকা জরিমানাসহ ২ মাসের কারাদণ্ডাদেশ দেন।

দণ্ডিত ৪৫ বছর বয়সী মোহাম্মদ খোরশেদ আলম নিজেকে এমবিবিএস (ডিএমসি), এফসিপিএস (মেডিসিন) ও এমডি (নিউরোলজি) পাস করা বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক হিসেবে পরিচয় দিতেন।

নগরীর জামাল খান এলাকার ‘আল্ট্রা অ্যাসে’ নামক প্রতিষ্ঠানে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক হিসেবে রোগী দেখতেন তিনি।

জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়, বৃহস্পতিবার নগরীর চকবাজারের পারেড কর্নার এলাকায় অনকলে (বাসায় এসে) একজন রোগী দেখতে আসেন অভিযুক্ত খেরশেদ আলম। ওই সময় তার চিকিৎসাপত্র দেখে রোগীর স্বজনদের সন্দেহ হলে তারা পরিচিত এক চিকিৎসককে বিষয়টি জানান। রোগীর পরিচিত ওই চিকিৎসক খোরশেদকে ভুয়া চিকিৎসক হিসেবে শনাক্ত করে বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালককে জানান।

অভিযোগ পেয়ে বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল মামুনকে নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ঘটনার সত্যতা পান। এতে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটকে তিনি লিখিত অভিযোগ করেন।

এ বিষয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, ‘বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। এ সময় ২০১০ সালের বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যান্ড ডেন্টাল কাউন্সিল আইন অনুযায়ী অভিযুক্তকে ২ মাসের কারাদণ্ড ও ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেয়া হয়।’

ভুয়া পরিচয়ের বিষয় জানাজানি হওয়ার পর অভিযুক্ত খোরশেদ আলম নিজেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাস বলে দাবি করেন বলে জানান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আবদুল্লাহ আল মামুন।

শিক্ষাবার্তা ডট কম/এএইচএম/২২/০৯/২০২৩ 

দেশ বিদেশের শিক্ষা, পড়ালেখা, ক্যারিয়ার সম্পর্কিত সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম, ছবি, ভিডিও প্রতিবেদন সবার আগে দেখতে চোখ রাখুন শিক্ষাবার্তায়