বাংলাদেশি কিশোরী নুবায়শা চিঠি লিখে বিশ্বজয় করলেন

প্রকাশিত: ৯:২১ অপরাহ্ণ, সোম, ১৩ সেপ্টেম্বর ২১

অনলাইন ডেস্কঃ

বিশ্ব ডাক সংস্থার (ইউনিভার্সাল পোস্টাল ইউনিয়ন) আয়োজিত ৫০তম পত্র লিখন প্রতিযোগিতায় কিশোরী নুবায়শা ইসলাম স্বর্ণপদক লাভ করেছে। চিঠি লিখে সিলেটের মেয়ে নুবায়শার বিশ্বজয়ের বিষয়টি সিলেটে বেশ আলোচিত হয়েছে। পত্র লেখার বিষয় ছিল কোভিড-১৯। তার সাফল্যে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার তাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। সিলেট নগরীর আনন্দ নিকেতন স্কুলের ৮ম শ্রেণির ছাত্রী ১৪ বছর বয়সী নুবায়শা ইসলাম সুইজারল্যান্ডে গিয়ে পুরস্কার গ্রহণ করবে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নুবায়শা জানান, এ অর্জন একা আমার নয়, পুরো দেশবাসীর।

জানা গেছে, গত ২৭ আগস্ট আইভরি কোস্টের আবিদজানে অনুষ্ঠিত কংগ্রেসে তার নাম ঘোষণা করেন ইউপিইউ’র মহাপরিচালক বিশার এ হোসেইন। এ প্রতিযোগিতায় দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেছে নর্থ মেসিডোনিয়ার ব্রুনো ইভানোভস্কি ও তৃতীয় ভিয়েতনামের দাও আনহথু।

নুবায়শা তার অনাগত বোনকে উদ্দেশ্য করে লেখা চিঠিতে করোনাকালে মৃত্যুভয়, স্বজন হারানোর ভয়ের কথা উল্লেখ করে। একই সঙ্গে প্রচণ্ড আশাবাদ ব্যক্ত করেছে একটি ভালো সময় আসার। সিলেট নগরীর আনন্দ নিকেতন স্কুলের ৮ম শ্রেণির ছাত্রী ১৪ বছর বয়সী নুবায়শা ইসলাম সুইজারল্যান্ডে গিয়ে পুরস্কার গ্রহণ করবে।

তার সাফল্যে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার নিজের ফেসবুক আইডিতে সবাইকে চিঠিটি পড়ার আমন্ত্রণ জানিয়ে লিখেছেন, ‘নুবায়শাকে অভিনন্দন। পাশাপাশি আমরা তার পিতা-মাতা ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকেও অভিনন্দন জানাই। জয় বাংলা। ভালো থাকো আমাদের স্বর্ণকিশোরী।’

নুবায়শা বাংলাদেশ ব্যাংক, সিলেট এর যুগ্ম-পরিচালক মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম এবং সিলেট গ্রামার স্কুলের জ্যেষ্ঠ শিক্ষিকা জেসমিন আক্তার দম্পতির একমাত্র মেয়ে।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.