বরিশালে সরকারি কর্মচারীদের ৭ দফা দাবী আদায়ে মানববন্ধন

অনলাইন ডেস্ক।।

পে-কমিশন গঠন করে বৈষম্যমুক্ত নবম পে-স্কেল বাস্তবায়ন, ৫০ শতাংশ মহার্ঘ্য ভাতাসহ সাত দফা দাবিতে বরিশালে মানববন্ধন করেছেন সরকারি কর্মচারীরা।

নগরীর অশ্বিনী কুমার হলের সমানে শনিবার বেলা ১১টায় সরকারি কর্মচারী দাবি আদায় ঐক্য পরিষদ বরিশাল বিভাগের উদ্যোগে এ কর্মসূচি পালিত হয়।

সংগঠনের বিভাগীয় সমন্বয়ক গোলাম কাদের তানুর সভাপতিত্বে ও সদস্য শহিদুল ইসলামের সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন জসিম উদ্দিন হাওলাদার, সাব্বির হোসেন, এসএম হেদায়েতুন্নবী জাকির, মজিবুর রহমান, জহিরুল হক সালাম, আবদুল লতিফ প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, দেশে নিত্যপণ্যসহ জীবনযাত্রার ব্যয় বাড়লেও সরকারি কর্মচারীদের বেতন বৃদ্ধি করা হয়নি। তাই পেকমিশন গঠন করে বৈষম্যমুক্ত নবম পে-স্কেল বাস্তবায়ন, অন্তর্বর্তীকালীন কর্মচারীদের ৫০ শতাংশ মহার্ঘ্য ভাতা দিতে হবে। বঙ্গবন্ধুর ঘোষণা অনুযায়ী, ১০ ধাপে বেতন স্কেল নির্ধারণসহ পেকমিশনে কর্মচারী প্রতিনিধি রাখতে হবে। সচিবালয়ের মতো সব সরকারি দপ্তর, অধিদপ্তরের পদ ও নাম পরিবর্তনসহ ১০ম গ্রেডে উন্নিত করে অভিন্ন নিয়োগ বিধি চালু করতে হবে।

টাইম স্কেল সিলেকশন গ্রেড পুনর্বহালসহ বেতন জ্যেষ্ঠতা পুনর্বহাল, বিদ্যমান গ্র্যাচুইটি হার ৯০ শতাংশের পরিবর্তে শতভাগ নির্ধারণ করতে হবে।

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের আপিল বিভাগের রায় বাস্তবায়নসহ সহকারী শিক্ষকদের বেতন নিয়োগ বিধি ২০১৯-এর ভিত্তিতে ১০ম গ্রেডে উন্নীত করতে হবে।

আউটসোর্সিং পদ্ধতি বাতিল করে নিয়োগকৃত ও উন্নয়ন খাতের কর্মচারীদের রাজস্ব খাতে স্থানান্তর করতে হবে।

ব্লক পোস্টের কর্মচারীসহ সব পদে কর্মরতদের পদোন্নতি বা ৫ বছর পর পর উচ্চতর গ্রেড প্রদান করতে হবে। জীবনযাত্রার ব্যয় বৃদ্ধির সঙ্গে সমন্বয় করে সব ভাতা পুনর্নির্ধারণ করতে হবে। চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩৫ ও অবসরের বয়সসীমা ৬২ বছর নির্ধারণের দাবি জানান বক্তারা। মানববন্ধনে বরিশালের ১৫টি দপ্তরের কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।