বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ছাত্রলীগ নতুন কমিটির শ্রদ্ধা

নিউজ ডেস্ক।।

কমিটি ঘোষণার পর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন ছাত্রলীগের নব গঠিত কমিটির শীর্ষ নেতারা।

বুধবার (২১ ডিসেম্বর) দুপুর ১২ টায় নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরের সামনে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তারা।

এ সময় বিদায়ী কমিটির সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়, সাধাররণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য, নতুন সভাপতি সাদ্দাম হোসেন, সাধারণ সম্পাদক শেখ ওয়ালী আসিফ ইনান ঢাবি শাখার সভাপতি মাজহারুল কবির শয়ন ও সাধারণ সম্পাদক তানভীর হাসান সৈকত উপস্থিত ছিলেন।

শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের নতুন সভাপতি সাদ্দাম হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, আজকে ৩০ তম জাতীয় সম্মেলনের মধ্য দিয়ে আমাদের নতুন কমিটি গঠিত হয়েছে, আমরা প্রত্যাশা করি জাতির পিতার আদর্শে বলিয়ান হয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নে ছাত্র সমাজের যে ভূমিকা তা আগামীতে আরও বাড়বে।

একই সঙ্গে এই নবগঠিত কমিটির মাধ্যমে আমরা শপথ করেছি, যারা এখনো স্বাধীনতা বিরোধী মৌলবাদ, জঙ্গিবাদের দোসর হয়ে তাদের অ্যাজেন্ডা বাস্তবায়ন করার চেষ্টা করে, শহীদের রক্তের সঙ্গে বেইমানি করে, যারা রাজনীতি করার লাইসেন্স নিয়ে সন্ত্রাসী, খুনি, দুর্নীতিবাজ, দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের পুনর্বাসন করার চেষ্টা করছে, বাংলার মাটিতে তাদের জায়গা হবে না। আমরা নিশ্চিত করতে পারি, গণশত্রুদের মুখোশ যদি আমরা উন্মোচন করতে পারি এবং তাদের বিরুদ্ধে আমাদের ছাত্র সমাজকে সংঘবদ্ধ করে আগামী নির্বাচনে শেখ হাসিনার বিজয় নিশ্চিত করতে পারবো।

দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো নিয়ে আলাদা পরিকল্পনা রয়েছে জানিয়ে ছাত্রলীগ সভাপতি বলেন, বর্তমান প্রজন্ম প্রধানমন্ত্রীর স্মার্ট বাংলাদেশের জেনারেশন। তাদের সঙ্গে নিয়ে আমরা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকেও স্মার্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত করতে চাই। একুশ শতকের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় দক্ষ মানবসম্পদ তৈরিতে ছাত্রলীগ কাজ করে যাবে।

নতুন কমিটিতে দায়িত্বপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক শেখ ওয়ালি আসিফ ইনান বলেন, সৃষ্টির শুরু থেকে এই পর্যন্ত বাংলাদেশ ছাত্রলীগ বাংলার ছাত্র সমাজকে নিয়ে কাজ করেছে যাচ্ছে এবং সকল যৌক্তিক আন্দোলন সংগ্রামে সফলতা লাভ করেছে। স্মার্ট বাংলাদেশের স্মার্ট সিটিজেন গড়ার ক্ষেত্রে যে দক্ষ ছাত্রসমাজ এবং ছাত্রবান্ধব শিক্ষা ব্যবস্থা দরকার সে শিক্ষা ব্যবস্থা গড়ার ক্ষেত্রে এবং শেখ হাসিনার যে এগিয়ে যাওয়ার পথ সেটা মসৃণ করতে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ অতীতের ন্যায় তার গৌরবোজ্জ্বল ধারা অব্যাহত রাখবে এবং শেখ হাসিনার স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার ক্ষেত্রে সর্ব প্রধান অগ্রসৈনিক হিসেবে কাজ করবে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।