পীরগাছায় তাম্বুলপুর দাখিল মাদ্রাসার সুপার বরখাস্ত

প্রকাশিত: ১:৪৮ অপরাহ্ণ, রবি, ৮ নভেম্বর ২০

পীরগাছা(রংপুর)প্রতিনিধিঃ

দায়িত্বে অবহেলা ও স্বেচ্ছাচারিতার কারণে রংপুরের পীরগাছার তাম্বুলপুর দ্বি-মূখী দাখিল মাদ্রাসার সুপার রনজিনা বেগমকে বরখাস্ত করেছেন স্থানীয় ম্যানেজিং কমিটি।

জানা যায়, উপজেলার তাম্বুলপুর দ্বি-মূখী দাখিল মাদ্রাসায় অনেকটা ঢাক-ঢোল পিটিয়ে মোটা অংকের বিনিময়ে তৎকালীন ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মাহবুবার রহমান রনজিনা বেগমকে সুপার হিসেবে নিযোগ প্রদান করেন। নিয়োগপ্রাপ্ত সুপার যোগদানের পর থেকে নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে তিনি প্রতিষ্টানের সকল ধরনের কাজ একাই করেন। রনজিনা বেগম সুপার হিসেবে দায়িত্ব গ্রহনের পর থেকে তিনি ধর্মীয় প্রতিষ্টানটিকে পুজি করে অর্থ উপার্জনে মরিয়া হয়ে উঠেন। মাদ্রাসায় শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার ফি’সহ সকল ধরনের আর্থিক লেনদেন তিনি করে থাকেন। বর্তমান সভাপতি প্রতিষ্টানের শৃঙ্খলা ভঙ্গের কারণে সুপার রনজিনা বেগমকে গত ২৬ অক্টোবর বরখাস্থ করে এবং ভারপ্রাপ্ত সুপার হিসেবে আদল হোসেনকে দায়িত্বভার প্রদান করেন। তিনি ইতিপূর্বে আরও একবার প্রতিষ্টানের অর্থ আত্মসাত, দায়িত্বে অবহেলা ও সরকারী ল্যাপটপ চুরি করে বিক্রয় করার কারণে ৪এপ্রিল-২০১৭ সালে বরখাস্থ হয়েছিলেন।

এব্যাপারে বরখাস্তকৃত সুপার রনজিনা বেগম এর মোবাইল যোগাযোগের চেষ্টা করলে তিনি ফোন রিসিভ করে সাংবাদিক পরিচয় পাওয়া মাত্র ফোন কেটে দেন।

তাম্বুলপুর দাখিল মাদ্রাসার সহকারি শিক্ষক হাবিবুর রহমান জানান, দায়িত্বে অবহেলা ও অর্থ আত্মসাতের কারনে তাকে বার বার বরখাস্ত এর শিকার হতে হচ্ছে।

তাম্বুলপুর দাখিল মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির অভিভাবক সদস্য আঙ্গুর আলম এর মোবাইলে কথা হলে তিনি জানান, আমি বরখাস্থের বিষয়টি শুনেছি মাত্র। তবে আমি রেজুলেশনে কোন স্বাক্ষর করেনি।

তাম্বুলপুর দাখিল মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি শাহিন সরদার এর সাথে কথা হলে তিনি জানান, ইতিপূর্বে তাকে সরকারী ল্যাপটপ বিক্রয় ও অর্থ আত্মসাতের কারণে বরখাস্থ করা হয়েছিল। এবারে মাদ্রাসায় শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও দায়িত্বে অবহেলার কারণে বরখাস্ত করা হয়েছে।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.