পায়ে হেঁটে হজের উদ্দেশে বের হলেন ভারতীয় যুবক

নিজস্ব প্রতিবেদক।।

ভারতের কেরালা রাজ্যের জেলা মালাপ্পুরাম। এই শহরে বাস করেন একজন মুসলিম যুবক। নাম শিহাব চত্তুর। তার ইচ্ছা পায়ে হেঁটে হজ করবেন। কিন্তু তার বাড়ি থেকে মক্কা নগরীর যে দূরত্ব, তাতে পায়ে হেঁটে হজ করা মোটেই সহজ নয়। কিন্তু তিনি যে প্রতিজ্ঞা করেই ফেলেছেন। তাই বাড়ি থেকে ৮৬৪০ কিলোমিটার দূরে মক্কায় পায়ে হেঁটে গিয়েই পবিত্র হজ আদায় করবেন শিহাব।

ভারতীয় একাধিক সংবাদমাধ্যম জানায়, ২০২৩ সালে হজ করার ইচ্ছা করেছেন শিহাব চত্তুর। এজন‌্য তিনি ২ জুলাই হজযাত্রা শুরু করেন। অনেকটা পথ পাড়ি দিয়ে তিনি এখন গুজরাটে অবস্থান করছেন। তার আশা, ২৮০ দিনে তিনি আট হাজার ৬৪০ কিলোমিটার পাড়ি দিতে সক্ষম হবেন।

ভারতীয় গণমাধ্যমকে শিহাব বলেন, ‘আমি হেঁটে মক্কায় যাওয়ার ইচ্ছা করেছি এবং প্রস্তুতি নিয়ে বের হয়েছি। প্রত্যেক সক্ষম মুসলিমের জন্য জীবনে একবার হজ করা ফরজ। আমি একজন সুস্থ মানুষ এবং দিনে ২৫ কিলোমিটার হাঁটতে পারি। সুতরাং আমার হজযাত্রা শুরু করা আবশ্যক। আমার পরিবার, বন্ধুমহলসহ অসংখ্য মানুষ আমাকে সমর্থন করেছেন। ’

পাথেয় হিসেবে শিহাব সাথে নিয়েছেন ১০ কেজি ওজনের একটি ব্যাগ; যাতে আছে একটি বিছানা, একটি ছাতা ও চার সেট কাপড়। তার ধারণা- তিনি মসজিদে বিনা পয়সায় থাকতে পারবেন এবং মানুষজন তাকে আপ্যায়ন করবেন।

আট মাস আগে শিহাবের প্রস্তুতি শুরু হয়। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘হজযাত্রার জন্য আমার ভ্রমণ বিমার প্রয়োজন ছিল, যেন পথে কোনও দুর্ঘটনার শিকার হলে আর্থিক সাহায্য পাই। এ ছাড়া পাকিস্তান, ইরান, ইরাক, কুয়েত ও সৌদি আরবের ভিসার প্রয়োজন ছিল। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ভি মুরালিধরন আমাকে প্রক্রিয়া এগিয়ে নিতে সাহায্য করেছেন।’

শিহাবের আশা, ছয় দেশের সীমানা অতিক্রম করে তিনি ২০২৩ সালের হজে অংশগ্রহণ করতে পারবেন এবং আল্লাহ তার দীর্ঘ পরিশ্রম কবুল করবেন। হজ পালন শেষে তিনি পরিশুদ্ধ হৃদয় নিতে দেশে ফিরতে চান।

সূত্র: দ্য নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস