পাসপোর্টের মেয়াদ না থাকলেও টাকা পাঠাতে পারবেন প্রবাসীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক।।

পাসপোর্টের মেয়াদ না থাকলেও লেবাননে বসবাসকারী প্রবাসী বাংলাদেশীরা বৈধভাবে মাইগ্রামের মাধ্যমে দেশে টাকা পাঠাতে পারবেন। গত বৃহস্পতিবার লেবাননের বৈরুতে নিযুক্ত বাংলাদেশ দূতাবাস এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানিয়েছে, বাংলাদেশ দূতাবাস বৈরুতের সাথে ‘ক্যাশ ইউনাইটেড মাইগ্রামের’ মাধ্যমে সহজে বাংলাদেশে টাকা পাঠানোর বিষয় নিয়ে তাদের মধ্যে আলোচনা হয়েছে।
এ প্রসঙ্গে বলা হয়, যাদের পাসপোর্টের মেয়াদ নেই বা শুধু পাসপোর্টের নম্বরটি রয়েছে তারাও এখন থেকে ক্যাশ ইউনাইটেড মানিগ্রামের যেকোনো এজেন্ট থেকে দেশে টাকা পাঠাতে পারবেন। এ ক্ষেত্রে তাদের দূতাবাস থেকে পাসপোর্টের ডেলিভারি স্লিপ সংগ্রহ করতে হবে। ডেলিভারি স্লিপে দূতাবাসের সিল ও তারিখ উল্লেখ থাকবে। এই স্লিপ দিয়ে আগামী এক বছর দেশে টাকা পাঠাতে পারবেন প্রবাসীরা। এমনকি দেশের ব্যাংক অ্যাকাউন্টেও টাকা জমা করতে পারবেন তারা।
দূতাবাসের বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, যাদের পাসপোর্টের ফটোকপি আছে এবং মেয়াদ রয়েছে তারা আগের মতোই দেশে টাকা পাঠাতে পারবেন। চলতি বছরের ডিসেম্বর মাসে সর্বোচ্চ ৫০০ ডলার পর্যন্ত রেমিট্যান্স প্রেরণে কমিশন খরচ হবে ৪.৯৯ ডলার। দূতাবাসের বিজ্ঞপ্তির পর আব্দুল্লাহ করিম নামের এক প্রবাসী দূতাবাসের কাছে জানতে চেয়ে বলেন, আমার পাসপোর্ট নাই। আকামার ফটোকপি আছে, মেয়াদ নাই। আমি কি পাঠাতে (টাকা) পারব। আর স্যার দুই হাজার ডলার ছাড়তে আমার কত টাকা লাগবে।
বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে তার প্রশ্নের জবাবে জানানো হয়, আপনার কাছে যদি পাসপোর্টের নম্বর থাকে, তাহলে দূতাবাস থেকে পাসপোর্টের ডেলিভারি স্লিপ সংগ্রহ করতে হবে। সেই স্লিপ দিয়ে টাকা পাঠাতে পারবেন। ওই স্লিপে দূতাবাসের সিল দেয়া থাকবে। ৫০০ ডলার পর্যন্ত মানিগ্রামের মাধ্যমে দেশে টাকা পাঠাতে খরচ হবে ৪.৯৯ ডলার। শাহজাহান খান নামের অপর এক লেবানন প্রবাসী বলেন, এমন সুযোগ করে দেয়ার জন্য বাংলাদেশ দূতাবাসকে ধন্যবাদ।